আব্দুল লতিফ তালুকদার: টাঙ্গা‌ইলে বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি ভাঙচুর ও নেতাকর্মীদের নামে মিথ্যা মামলা দি‌য়ে হয়রা‌নির অ‌ভি‌যো‌গে আওয়ামীলীগ নেতা‌কে ব‌হিস্কার করা হ‌য়ে‌ছে। গত ২৮ এ‌প্রিল কেন্দ্রীয় আওয়ামীলী‌গের সাধারন সম্পাদক ওবায়দুল কা‌দেরের স্বাক্ষ‌রিত এক চি‌ঠি‌তে এই ব‌হিস্কার করা হয়। ব‌হিস্কৃত আওয়ামীলীগ নেতা জেলার ভুঞাপুর উপ‌জেলার গো‌বিন্দাসী ইউ‌নিয়ন আওয়ামীলী‌গের সাধারন সম্পাদক দুলাল হো‌সেন চকদার। বুধবার (১৯ মে) বিকেলে দল থে‌কে ব‌হিস্কা‌রের বিষয়টি জেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক রফিকুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। ‌এদিকে দুলাল হো‌সেন চকদার‌কে দল থে‌কে ব‌হিস্কা‌রের ঘটনা জানাজা‌নি হ‌লে এলাকায় নানা গুঞ্জনের সৃষ্টি হয়েছে এবং নেতা কর্মীরা মিষ্টি বিতরণ করেছেন।

ব‌হিস্কার হওয়া দুলাল হো‌সেন চকদার বলেন, আমি কিছুই জানি না। তাছাড়া বহিষ্কারের কোন কাগজপত্র পাইনি। কারো মুখেও শুনতে পাইনি। দল থেকে আমাকে বহিষ্কার করবে এ রকম কোন

কর্মকান্ড করিনি। দলের বাইরে গিয়ে নির্বাচন বা দলের বাইরে অন্য কাউকে নির্বাচনও করে দেইনি।

উপ‌জেলার গোবিন্দাসী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ইকরাম উদ্দিন তারা মৃধা বলেন, ব‌হিস্কৃত দুলাল হোসেন চকদা‌রের বিরুদ্ধে একাধিক মামলা রয়েছে। এছাড়া নানা অবৈধ কাজের সাথে জড়িত থাকার কারণে দল থেকে তা‌কে বহিষ্কার করা হয়েছে।

জেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক রফিকুল ইসলাম জানান, দলীয় নেতাকর্মীদের নামে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ছবি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি ভাংচুরের অভিযোগে গত ২৮ এপ্রিল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এমপি লিখিতভাবে দুলাল চকদারকে দল থেকে বহিষ্কার ও সংগঠনের সকল কার্যক্রম থেকে অব্যাহতি প্রদান করেন।

Previous articleসাংবাদিক নির্যাতনের ঘটনায় প্রমান করে দেশে বিন্দুমাত্র গণতন্ত্র নেই: মির্জা ফখরুল
Next articleদেশে করোনায় গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৩৬ জনের মৃত্যু
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।