এ.এস.লিমন: কুড়িগ্রামের রাজারহাট সদর ইউনিয়নের কিশামত পুনকর গ্রামে মোঃ বাবলু মিয়ার বাড়িতে টানা ১০ঘন্টা বিয়ের দাবীতে অনশন করে বর মেলিনে এক স্কুল পড়ুয়া ছাত্রীর।

জানা যায়, রাজারহাট উপজেলার সদর ইউনিয়নের কিশামত পুনকর গ্রামের মোঃ ছফুর মিয়ার পুত্র মোঃ বাবুল মিয়া(২৬) এর সঙ্গে ঘড়িয়ালডাঙ্গা ইউপির খিঁতাবখা গ্রামের মোঃ ছাত্তার আলীর কন্যা ঘড়িয়ালডাঙ্গা উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর ছাত্রী মোছাঃ সাদিকা আক্তার (১৬) এর দীর্ঘদদিন ধরে প্রেম চলে আসছে। এরই সূত্র ধরে গতকাল বিকেল ৫ ঘটিকায় বাবলু মিয়ার বাড়িতে ওই স্কুল পড়ুয়া ছাত্রী বিয়ের দাবীতে অনশন করে। পরে রাত ১১ঘটিকা ওই ছাত্রীর মা ও বড় ভাই জাহিদ হাসান বাবলুর বাড়িতে এসে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের উপস্থিততে মুচলেকা দিয়ে ওই ছাত্রীকে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় এলাকা জুড়ে চাঞ্চল্যকর সৃষ্টি হয়েছে।

ওই ছাত্রী বলেন, বাবলু মিয়ার সঙ্গে এক বছর ধরে প্রেমের সম্পর্ক। আমার বাবা-মা এ সর্ম্পকের কথা জেনে যায় এবং মেনে নিতে চান না। তাই আমি বাড়ি থেকে বাবলু মিয়াকে বিয়ে করার জন্য চলে আসি।

প্রেমিক বাবলু বলেন, আমি বিয়েu করার জন্য মেয়ের বা-মায়ের কাছে প্রস্তাব পাঠালে তারা রাজি হয়নি। এরপর আমি মেয়ের সাথে দেখা সাক্ষাত বন্ধ করে দেই। তাই হয়তো ভালবাসার টানে আমার বাড়িতে এসেছে।

ওই ছাত্রীর বড় ভাই জাহিদ হাসান বলেন, ছোট বোনের বয়স ১৬ বছর হওয়ায় আমি দু বছর পর তাদের বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে নিয়ে আসি। বোনের প্রাপ্ত বয়স হলে ওই বাবলু মিয়ার সঙ্গে বিয়ে দিব।

Previous articleটাঙ্গাইলে পুকুর থেকে ভাই-বোনের মরদেহ উদ্ধার
Next articleপাঁচবিবিতে ১১৫ বোতল ফেন্সিডিল, ১ কেজি গাঁজা ও ২টি মোটরসাইকেলসহ আটক ২
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।