বাংলাদেশ প্রতিবেদক: ফরিদপুরের নগরকান্দায় বিয়ের ৫ মাসের মাথায় এক গৃহবধূর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার (২৭ মে) সকালে উপজেলার ডাঙ্গী ইউনিয়নের গোয়াইলপোতা গ্রামে শ্বশুর বাড়ি থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

গৃহবধূ শংকরপাশা গ্রামের আ. রব হাওলাদারের মেয়ে মীম আক্তার (১৮)। তার স্বামী একই ইউনিয়নের গোয়াইপোতা গ্রামের রশিদ মৃধার ছেলে বাবু মৃধা। তারা দুইজন কৃষ্ণপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিলেন। প্রেমের সম্পর্কের সূত্র ধরে ৫ মাস আগে পারিবারিকভাবে তাদের বিয়ে হয়।

বাবু মৃধার ভাবি ইভা বেগম জানিয়েছে, বুধবার (২৬ মে) রাতে আমরা যার যার রুমে ঘুমাতে যাই। ফজর আজানের পর আমি ঘুম থেকে উঠে বের হয়ে দরজার সামনে ছোট আম গাছে মীম গলায় ওড়না পেঁচানো অবস্থায় ঝুলতে দেখি। পরে চিৎকার করলে প্রতিবেশীরা এতে মীমকে মাটিতে নামায়। তখনও মীম জীবিত ছিল। পরে আমার তেল-পানি দিয়ে চিকিৎসকের কাছে নেওয়ার সময় তার মৃত্যু হয়।

মীমের বাবা রব হাওলাদার অভিযোগ করেন, আমি গরিব মানুষ। এলাকার মুরুব্বিদের পরামর্শে এ বিয়েতে রাজি হয়েছিলাম। আমার মেয়েকে ওরা খুন করে ফেলেছে। বাবু মৃধা পলাতক থাকায় তার বক্তব্য জানা যায়নি।

নগরকান্দা থানার অফিসার ইনচার্জ সেলিম রেজা বিপ্লব বলেন, অভিযোগ পেয়ে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Previous articleবারবার ভুল তথ্য ছড়ালে কঠোর ব্যবস্থা নেবে ফেসবুক
Next articleপাঁচবিবিতে তালাকপ্রাপ্ত স্ত্রীকে মারপিট, থানায় অভিযোগ
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।