বাংলাদেশ প্রতিবেদক: মুলাদীতে রিমা আক্তার (১৯) নামের এক গৃহবধুর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পরিবারের সদস্যরা। শনিবার রাত ৮টার দিকে উপজেলার গাছুয়া ইউনিয়নের পূর্বহোসনাবাদ গ্রামের রাকিব সরদারের বাড়ি থেকে তার স্ত্রীর লাশ উদ্ধার করা হয়। রিমা আক্তার পাশ্ববর্তী মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলার কাদিরাবাদ ইউনিয়নের ভোঙ্গা গ্রামের আঃ করিম রাড়ীর মেয়ে। প্রায় আড়াই বছর আগে পূর্বহোসনাবাদ গ্রামের শাহেদ আলী সরদারের পুত্র রাকিবের সাথে বিয়ে হয়। তাদের একটি পুত্র সন্তান রয়েছে। রিমা আক্তার পারিবারিক কলহের জেরধরে আতœহত্যা করেছে বলে দাবী করেছেন তার শ্বশুর বাড়ির লোকজন। স্থানীয়রা জানান, তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে শনিবার সন্ধ্যায় রাকিব ও রিমার মধ্যে ঝগড়া হয়। ঝগড়ার এক পর্যায়ে রাকিব তার স্ত্রী রিমাকে মারধর করে মিয়ারহাট বাজারে চলে যান। রাত ৮টার দিকে বাড়িতে ফিরে স্ত্রীকে ঘরের মধ্যে দেখতে না পেয়ে খোঁজাখুজি শুরু করেন। পরে ঘরে পাশ্বে একটি গাছে রিমাকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পেয়ে তাকে উদ্ধার করে মুলাদী হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। সংবাদ পেয়ে মুলাদী থানা পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রাকিব সরদারকে আটক করেন। এঘটনায় রিমার পিতা আঃ করিম রাড়ী বাদী হয়ে রাতেই রাকিব সরদারকে আসামী করে নির্র্যাতন ও আতœহত্যায় প্ররোচণার অভিযোগ এনে মুলাদী থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলার সূত্রে রাকিবকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে পুলিশ রোববার সকালে জেলহাজতে প্রেরণ করেছে। এব্যাপারে মুলাদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এস.এম মাকসুদুর রহমান জানান, গৃহবধুর পিতার মামলার প্রেক্ষিতে স্বামীকে আটক করা হয়েছে এবং লাশ ময়নাতদন্তের জন্য বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

Previous articleসাঁথিয়ার কাঠুরের ছেলে আবু বকরের মেডিক্যালে ভর্তির টাকা দিলেন ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটি
Next articleমধুপুরে প্রাচীন শশ্মান-ভূমি রক্ষায় আদিবাসী ছাত্র-জনতার বিক্ষোভ
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।