অতুল পাল: বাউফলের মানসিক ভারসাম্যহীন এক পাগলি ফুটফুটে কণ্যা সন্তানের জন্ম দিয়েছে। রবিবার (৩০ মে) গভীর রাতে উপজেলার কালিশুরী ইউনিয়নের রাজাপুর মাতবর বাজার এলাকায় সন্তান প্রসব করে ওই পাগলি। পাগলির নাম পরিচয় কিছুই জানা যায়নি। ওই সন্তানের পিতৃ পরিচয়ও জানা যায়নি। আজ সোমবার নবজাতকসহ পাগলিকে উদ্ধার করে বাউফল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করানো হয়েছে। স্থানীয়রা জানায়, রবিবার সন্ধ্যা থেকেই পাগলি প্রসব বেদনায় ভোগছিল। মানসিক রোগী বলে কেউ কাছে এগিয়ে যায়নি। কেউ এগিয়ে গেলে নানা প্রশ্ন উঠতে পারে এ ভয়েও কেউ কাছে যায়নি বা কোথাও জানায়নি। এভাবেই রাত প্রায় সারে ১২ টা পর্যন্ত প্রসব বেদনায় কষ্ট পেয়ে বাজারের একটি কাঁচা খোলা ঘরে ফুটফুটে কন্যা সন্তানের জন্ম দেয় ওই পাগলি। পরে স্থানীয় রেনু বালা নামে এক মহিলা এগিয়ে গিয়ে মোটামোটি পরিস্কার পরিচ্ছন করে দেন। স্থানীয় বাসিন্দা পটুয়াখালী পলিটেকনিক ইন্সিটিটিউটের চতুর্থ বর্ষের ছাত্র মাহমুদুল হাসান জানান, চার-পাঁচমাস ধরে স্থানীয় লোকজন মানসিক ভারসাম্যহীন ওই পাগলিকে এলাকায় দেখে আসছিল। কিন্তু ওই পাগলি কি ভাবে সন্তান সম্ভবা হলো সে খবর কেউ জানাতে পারেনি। বাউফল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডাক্তার এএসএম সায়েম জানান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাকির হোসেন আমাকে অবহিত করলে গতকাল সোমবার বেলা ১টার দিকে জরুরীভাবে মানুষিক ভারসাম্যহীন পাগলি ও তার নবজাতককে উদ্ধার করে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিবির পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। বর্তমানে মা ও নবজাতক সুস্থ রয়েছে। উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা প্রশান্ত কুমার সাহা (পিকে সাহা)সহ অন্যান্য চিকিৎসকরা মা ও নবজাতকের তদারকি করছেন। তবে ওই মানসিক রোগী কোন এলাকার তার কোন তথ্য পাওয়া যায়নি। পাওয়া যায়নি নবজাতকের পিতৃ পরিচয়ও।

Previous articleকলাপাড়ায় পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু
Next articleখুলনায় জনগণের তাড়া খেয়ে পালালেন এমপি
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।