তাবারক হোসেন আজাদ: গত ২০ বছর ধরে শরীরের মাঝা ক্ষয় হয়ে গেছে। আরো অন্যান্ন রোগ বিরাজ করছে। ডাক্তারি খরচ বহন করতে হিমসিম খেতে হচ্ছে কৃষক স্বামীর। অবশেষে এ রোগ থেকে মুক্তি পেতে পারুল আক্তার (৫০) নামের এক গৃহবধু গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ফ্যানের সাথে ঝুলে আত্মহত্যা করেছেন।
মৃত নারীর লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। থানায় ইউডি মামলা করেছেন নিহতের বোন জেসমিন।

সোমবার (১৪ জুন) ভোরে লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে বামনী ইউপির কোলাকোপা গ্রামের রমজাগাজি বেপারি বাড়ীতে গৃহবধুর নীজ ঘরে এঘটনা ঘটে।
সে একই এলাকার কৃষক ফারুকের স্ত্রী, তার তিন ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে।

নিহতের বোন জেসমিন আক্তার জানান, গত ২০ বছর ধরে পারুল বেগম শরীরের বিভিন্ন অংশে জটিল রোগে আক্রান্ত। উন্নত চিকিৎসার পরও রোগটি ভালো হয় না। কৃষক স্বামীর পক্ষেও বিশাল ব্যায় বহন করা সম্ভব হচ্ছিলো না। গত ৬ মাস আগে দুইবার বিষপানে আত্মহত্যারও চেষ্টা করেন তিনি। বুধবার ঢাকার ইবনেসিনা হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা শেষে তাকে বাড়ীতে নিয়ে আসা হয়েছে। অবশেষে সোমবার ভোরে রোগের যন্ত্রনায় অতিষ্ট হয়ে নীজ ঘরে সকলের অগোচরে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ফ্যানের সাথে আত্মহত্যা করেন। সকাল সাড়ে ১১ টায় সহকারি পুলিশ সুপারের উপস্থিতিতে পারুলের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়।

বামনী ইউপি সদস্য মোঃ হারুনুর রশিদ বলেন, মহিলা দির্ঘদিন ধরে অসুস্থ্য ছিলো। গলায় দাগ ও হাটু ভাঙ্গা থাকায় সন্ধেহ হয়েছে।

এঘটনায় সহকারি পুলিশ সুপার (রায়পুর সার্কেল) স্পীনা রানী প্রামানিক বলেন, আত্মহত্যাকারি বৃদ্ধ নারীর মৃত্যুটি সন্ধেহ থাকায় ময়না তদন্তের জন্য লাশ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠাঠানো হয়েছে। রিপোর্ট আসলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।।

Previous articleভিসি হিসেবে সার্বক্ষণিক ক্যাম্পাসে থাকবো: বেরোবির নতুন উপাচার্য
Next articleসাপাহারে বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রাজ্জাকের লাশ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।