জি.এম.মিন্টু: কর্তৃপক্ষের উদাসীনতা, নির্মান কাজে ধীরগতি ও মুষলধারে বৃষ্টির ফলে যশোর-টু চুকনগর ভায়া কেশবপুর হাইওয়ে সড়কটির বেহাল দশার ফলে চলাচলে সম্পূর্ন ঝুকিপূর্ন হয়ে পড়েছে। রাস্তার দিকে তাকালে বুঝাই যাচ্ছেনা এটি হাইওয়ে সড়ক। বর্তমান রাস্তার বেহাল দশা দেখে মনে হচ্ছে এটি যেন ধান রোপনের ক্ষেত।

বিশেষ করে জনগুরুত্বপূর্ন কেশবপুর সরকারি কলেজ গেট থেকে ট্রাক টার্মিনাল পর্যন্ত প্রায় ১ কিলোমিটার রাস্তা একেবারে জরাজীর্ণ অবস্থা। শহর এলাকার মধ্য দিয়ে এই রাস্তাটি অতিক্রম করায় এখানে জনসাধারনের ভীড় সব সময় লেগে থাকে। তাছাড়া রান্তার দু’পাশে পানি নিষ্কাশনের জন্য তৈরী ড্রেনটির সংস্কার কাজ শেষ না হওয়ায় সড়কের দু’ধারে ফেলা বিভিন্ন ময়লা আবর্জনার স্তুপ হতে প্রচন্ড দূর্গন্ধ সৃষ্টি হচ্ছে। এমনকি ময়লা-আবর্জনায় ভরা স্তুপের ড্রেনটিতে বৃষ্টির পানি জমাট বেঁধে বিভিন্ন প্রকার মশা জন্ম নিচ্ছে যা অচিরে মারাত্মক স্বাস্থ্য ঝুকির কারন হতে পারে। দীর্ঘদিন ধরে অনিয়তান্ত্রিক ভাবে পুরো রাস্তা একসাথে খুড়ে ধীরগতিতে চলছে এই হাইওয়ে সড়কের কাজ। নীতিমালা অনুসারে সড়কের কাজ না করায় এমনিতে পথ চলাচলে সাধারন মানুষ ভুগান্তিতে ছিল। কর্তৃপক্ষের উদাষিনতার কারনে হাইওয়ে এই সড়কটির মাটি খননের পর খোওয়া-বালি ছাড়াই দীর্ঘদিন ধরে এই সড়কের কাজ পড়ে ছিল। যে কারনে বর্ষা মৌসুমে বৃষ্টির পানি জমে রাস্তায় তৈরি হচ্ছে পিচ্ছিল কাদা, ফলে চরম জনদূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে সড়কগামী পথচারীদের। কেশবপুর শহরের পথচারী শফিকুল, রফিকুল ও তবিবুরসহ অনেকে বলেন, দীর্ঘ এক সপ্তাহযাবত বৃষ্টির কারণে রাস্তার এমন দূরাবস্থা, চলাচলের জন্য খুব সমস্যা হচ্ছে, যদি বর্ষা মৌসুমের আগে এই রাস্তায় খোয়া-বালু দেওয়া হত তাহলে আমাদের মত সাধারন মানুষের চলাচলে দূর্ভোহ পোহাতে হত না। কর্তৃপক্ষ ও স্থানীয় প্রশাসন যদি জনস্বার্থে নজরদারী করেন তবে রাস্তাটি মানুষের চলার উপযোগী হবে বলে তারা আশাবাদ ব্যক্ত করেন। এদিকে মেইন সড়ক সংলগ্ন কেশবপুর কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ অবস্থিত হওয়ায় এখানে পাঁচ ওয়াক্ত নামায আদায় করতে আসা মুসল্লীরা জরাজীর্ন এই রাস্তার কারনে চরম দূর্ভোগের শিকার হচ্ছে। এব্যাপারে মসজিদে নামাজ আদায় করতে আসা অনেক মুসাল্লিরা বলেন, আমরা অনেকেই শহরে ব্যবসা করি। আযান দিলে প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে এই মসজিদে নামাজ আদায় করতে আসি। কিন্তু রাস্তার এমন দূরাবস্থার কারণে আমাদের মসজিদে আসাটা খুবই কষ্টকর হয়ে দাঁড়িয়েছে। মুসাল্লিরা অতিসত্বর এদূরাবস্থা নিরাসনে কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

Previous articleউখিয়ায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় ২ জন নিহত
Next article৭ বছরের সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি ৩২বছর পর গ্রেপ্তার
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।