অতুল পাল: পটুয়াখালীর বাউফলে এক তরুনীকে (১৮) বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে দীর্ঘদিন শারিরিক সর্ম্পক করে বিয়ে না করায় ওই তরুনী প্রেমিকের বাড়ি গিয়ে ধর্ষনের বিচার চেয়ে নির্যাতনের স্বীকার হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এমন ঘটনা ঘটেছে উপজেলার কেশবপুর ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডে। ওই তরুণী অভিযোগ করে বলেন, তিন বছর আগে থেকে প্রতিবেশি মো. রাব্বি (২৩) নামের এক যুবকের সাথে তার প্রেমের সম্পর্ক চলে আসছে। এক মাস আগে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে তাকে ধর্ষণ করে রাব্বি। এরপর বিয়ের কথা বললে বিভিন্ন কৌশলে সে এড়িয়ে যায়। নিরুপায় হয়ে গত শুক্রবার (২৩ জুলাই) সন্ধ্যার দিকে রাব্বির বাড়িত গিয়ে ধর্ষণের বিষয়টি তার বাবা-মাকে জানাই এবং বিয়ের দাবিতে ওই ঘরে অবস্থান করি। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে রাব্বির পরিবারের লোকজন আমাকে মারধর করলে আমি অচেতন হয়ে পরি। ওই অবস্থায় তারা আমাকে ঘরের বারান্দায় ফেলে রাখে। ২৪ জুলাই শনিবার সকালে পূণরায় তারা আমাকে মারধর করে উঠান ফেলে রাখে। বিকল বলা ফর মারধর করা হয়।
তরুণীর মা জানান, খবর পেয়ে বিকেলে ৯৯৯ নম্বরে ফোন করে বিষয়টি পুলিশকে জানালে পুলিশ মেয়েকে উদ্ধার করে উপজলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান। তিনি আরও বলেন, রাব্বির চাচা স্থানীয় ইউপি সদস্য খুব প্রভাবশালী। তিনি এ বিষয়ে বাড়াবাড়ি না করার জন্য আমাদেরকে মেরে ফেলার হুমকি দিচ্ছেন। মেয়ে সুস্থ্য হলে আইনের আশ্রয় নেবেন বলেোও তিনি জানান।
এদিকে ঘটনার পর ঘরে তালা লাগিয়ে রাব্বি ও পরিবারের লোকজন গা-ঢাকা দিয়েছেন। রাব্বির চাচা ইউপি সদস্য মো. শাহজাহান জানান, শুনেছি মেয়েটির সাথে রাব্বির প্রমের সম্পর্ক ছিল। কিন্তু মেয়ের বয়স ১৮ বছরের কম। তাই আমার পক্ষে বিয়ে পড়ানো সম্ভব হয়নি।না। আমি মেয়ে পক্ষকে অপেক্ষা করতে বলেছি। কিন্তু মেয়ের অভিভাবকরা আমার কথা মানত চান না। অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, মেয়েকে হাত ধরে ঘর থেকে বের করে দেয়া হয়েছে। মারধর ও হুমকির অভিযোগ সত্য নয়। বাউফল থানার ওসি আল মামুন জানান, মেয়েকে উদ্ধার করে হাসপতালে ভর্তি করানো হয়েছে। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Previous articleভিকারুননিসার অধ্যক্ষের ফোনালাপ নিয়ে তোলপাড়, অভিভাবক কমিটি যা বলছেন
Next articleঈশ্বরদীতে ৩ জুয়াড়ি গ্রেফতার
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।