ওসমান গনি: চান্দিনায় পৃথক দুইটি হামলা ও সংঘর্ষের ঘটনায় ইউপি মেম্বারসহ ৫ জনকে কুপিয়ে জখম করেছে প্রতিপক্ষরা। ওই ঘটনায় পৃথক দুইটি মামলা দায়ের করা হয়েছে চান্দিনা থানায়।

একটি মামলায় ১ জনকে আটক করেছে থানা পুলিশ। গত সোমবার (২৬ জুলাই) মাধাইয়া ইউনিয়নের কুটুম্বপুর গ্রামে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ইউপি মেম্বারসহ ২ জনকে কুপিয়ে জখমের খবর পাওয়া গেছে। এর আগে রোববার (২৫ জুলাই) চান্দিনা পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ডে তুলাতলী গ্রামে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে একই পরিবারের ৩ জনকে কুপিয়ে জখম করে প্রতিপক্ষ। এছাড়া পৃথক ঘটনায় উভয় পক্ষের কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়ে বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। জানা যায়, গত সোমবার সকাল সাড়ে দশটায় এলাকার মারামারির ঘটনা শুনে ঘটনাস্থলে ছুটে যান মাধাইয়া ইউনিয়নের ২ নং ওয়ার্ডের মেম্বার এবং ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি মো. আলাউদ্দিন। তাকে কুপিয়ে জখম করে একটি পক্ষ। এসময় মেম্বারকে বাঁচাতে গিয়ে গুরুতর জখম হয় নাজমুল হাসান সজীব। সে মাধাইয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি। এ ঘটনায় আলাউদ্দিন মেম্বারের পিতা আব্দুল জলিল বাদি হয়ে চান্দিনা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। পরে চান্দিনা থানা পুলিশ এ মামলার ১নং আসামী মো. জহির বেপারীকে আটক করে। এর আগে গত রোববার সকালে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে পৌরসভা তুলাতলী গ্রামে দুই পক্ষের মধ্যে মারামারি হয়। এসময় নূরুল আমিন সোহাগ তার ভাই ইব্রাহিম খলিল নাঈম ও পিতা রুহুল আমিনকে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে প্রতিপক্ষ। গুরুতর আহতবস্থায় সোহাগকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। তার পিতা ও ভাই কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। ওই ঘটনায় আহত নূরুল আমিন সোহাগের স্ত্রী রুজিনা আক্তার বাদি হয়ে চান্দিনা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এ মামলায় পুলিশ কাউকে আটক করতে পারেনি। এই দুই ঘটনায় চান্দিনা থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) শামসুদ্দিন মোহাম্মদ ইলিয়াস জানান, পৃথক ঘটনায় দুইটি মামলা হয়েছে। একজন আসামীকে আমরা গ্রেফতার করেছি। অপর মামলার আসামীরা পলাতক। গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

Previous articleরংপুরে বেড়েছে শনাক্ত, আরও ১২ জনের মৃত্যু
Next articleবাউফলে মহিলার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।