রবিউল হোসাইন সবুজ: কুমিল্লা জেলার লালমাই উপজেলার বেলঘর উত্তর ইউনিয়নের ইছাপুরা গ্রামের একই ঘরে দুই যুবককে হত্যার পর লাশ পেলে যায় দুবৃত্তরা।

সোমবার (২৬জুলাই) রাত লালমাই উপজেলার বেলঘর উত্তর ইউনিয়নের ইছাপুরা গ্রামের একই ঘরে দুই যুবক পাশা-পাশি ঘুমাচ্ছিলেন। সকালে উভয়ের মৃত লাশ দেখতে পায় ।সন্দেহ করা হচ্ছে ডাকাত দল দুই যুবককে হত্যা করে।তার পর একজন কে গলায় ফাঁস দিয়ে লটকিয়ে রাখে, অন্যজনকে খাটে রেখে কৌশলে পালিয়ে যায়।

নিহত ব্যক্তিরা হলেন, হাসানুজ্জামানের ছেলে স্থানীয় ব্যবসায়ী হায়াতুন্নবী শরিফ (২৮) এবং অপরজন আবুল হাশেম এর ছেলে দোকানের কর্মচারী ফয়েজ আহমেদ (২৭)।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নিহত দুজন একই গ্রামের বাসিন্দা। শরিফ গ্রামে মুদি দোকানে ব্যবসা করতেন অপরজন ফয়েজ আহমেদ শরিফ আহমেদের দোকানে চাকরি করতো। শরিফের পিতা মাতা সোমবার রাতে শরিফের বোনের বাড়িতে বেড়াতে গেলে রাতে তারা দোকান বন্ধ করে ঘরে ঘুমাতে যায়। মঙ্গলবার সকালে তাদেরকে ঘুম থেকে উঠার জন্য তার পিতা ডাক দিলে তাদের সাড়া না পেয়ে ঘরের দরজা ভাঙ্গলে তাদের লাশ দেখতে পায়। পরে তাদের চিৎকার শুনে স্থানীয় জনতা পুলিশকে অবহিত করলে ঘটনাস্থলে পুলিশ উপস্থিত হয়।

উল্লেখ্য, শরীফের একটি গরুর খামার রয়েছে। এ কুরবানীতে সে দশ লক্ষ টাকার গরু বিক্রি করে। অনেকর সন্দেহ গরুর টাকার জন্য ডাকাতরা তাদেরকে হত্যা করে।

এ বিষয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন সদর দক্ষিণ সার্কেল প্রশান্ত পাল, লালমাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ আইয়ুব, ভূশ্চি পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ রফিকুল ইসলাম, বেলঘর দক্ষিণ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আবদুল মন্নান (মনু), বেলঘর উত্তর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আবুল খায়ের মজুমদার, স্থানীয় ইউপি সদস্য দেলোয়ার হোসেন প্রমুখ।

Previous articleফের সংসার ভাঙল ন্যান্সীর, আবারও বিয়ের ইঙ্গিত
Next articleচাটখিলে নবম শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে গৃহ শিক্ষক আটক
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।