কামাল সিদ্দিকী: বহু প্রতীক্ষার পর অবশেষে পাবনায় আরটি-পিসিআর ল্যাবের উদ্বোধন করা হয়েছে। বুধবার দুপুরে প্রধান অতিথি হিসেবে আনুষ্ঠানিক ভাবে ল্যাবের উদ্বোধন করেন পাবনা সদর আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম ফারুক প্রিন্স।

এদিকে গত ২৪ ঘন্টায় করোনা ভাইরাস ও উপসর্গে আরও ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ সময়ে ২০৯ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুর থেকে বুধবার দুপুর পর্যন্ত তারা মারা যান। ল্যাব উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সংসদ সদস্য গোলাম ফারুক প্রিন্স বলেন, প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার সর্বাত্মক সহযোগিতার কারনেই পাবনায় অত্যাধুনিক মানের আরটি-পিসিআর ল্যাব পাওয়া সম্ভব হয়েছে। এছাড়াও পাবনার কয়েকজন গুনী সন্তানের ঐকান্তিক প্রচেষ্টা আর পাবনা মেডিকেল কলেজ প্রশাসনের আন্তরিকতার কারণে পাবনাবাসী আজ এর সুফল পাবেন। আজকের পর থেকে পাবনার কোন মানুষকে ঢাকা, রাজশাহী বা সিরাজগঞ্জের মুখাপেক্ষী হতে হবে না করোন পরীক্ষা ও রিপোর্পের জন্য। পাবনা মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ডাঃ মোঃ বুলবুল হাসানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন পাবনা-সিরাজগঞ্জ সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য নাদিরা ইয়াসমিন জলি, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রেজাউল রহিম লাল, জেলা প্রশাসক বিশ্বাস রাসেল হোসেন, পুলিশ সুপার মহিবুল ইসলাম খান, সিভিল সার্জন ডাঃ মনিস্বর চৌধুরী। পাবনা মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ডাঃ মোঃ বুলবুল হাসানের বলেন, আরটি- পিসিআর ল্যাবগুলোর জন্য জনবল নিয়োগ প্রক্রিয়াধীন থাকলেও পাবনা সদর আসনের সংসদ সদস্য গোলাম ফারুক প্রিন্সের ব্যক্তিগত আর্থিক সহায়তা নিয়ে জনবলের বেতন নির্বাহ করবেন। উদ্বোধনী দিনে সংসদ সদস্য জনবলের বেতনের জন্য ২ লক্ষ টাকার চেক হস্তান্তর করেন। এই ল্যাব থেকে এক সাথে ৯৪ টি নমুনা পরীক্ষা করা হবে। অন্যান্যর মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ২৫০ শয্যার পাবনা জেনারেল হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ডাঃ একেএম আবু জাফর, পাবনা সদর উপজেলা চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন, বিশিষ্ট শিক্ষাবীদ প্রফেসর শিবজিত নাগ, পাবনা ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশনের প্রতিনিধি বীরমুক্তিযোদ্ধা বেবী ইসলাম, পাবনা প্রেসক্লাবের সভাপতি এবিএম ফজলুর রহমান, সম্পাদক সৈকত আফরোজ আসাদ, আওয়ামীলীগ নেতা আসম আব্দুর রহিম পাকন প্রমুখ। এদিকে করোনা ভাইরাস ও উপসর্গে মৃতু বিষয়ে পাবনা জেনারেল হাসপাতালের পরিসংখ্যানবিদ সোহেল রানা জানান, ২৪ ঘন্টায় মারা গেছেন ৪ জন। রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে মারা গেছেন ৭ জন। এছাড়াও সদরের মনোহরপুরে একজন মারা গেছেন। উপসর্গে মৃতরা হলেন; জেলার আটঘরিয়া উপজেলার মিয়াপাড়া গ্রামের আব্দুল আওয়ালের ছেলে হাফিজ উদ্দিন (৮৫), ঈশ্বরদীর আব্দুস সামাদের ছেলে জার্জিস হোসেন (৭০), সুজানগরে দিরাজ উদ্দিনের ছেলে আইন উদ্দিন (৮৫), ফরিদপুরের ধানুয়াঘাটা গ্রামের জসিম উদ্দিনের ছেলে গোলজার উদ্দিন (৫০), পাবনা সদরের সিংগাবাজার এলাকার মাহমুদ আলী (৫৪)।

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় করোনায় ৩ জন ও উপসর্গে মারা যাওয়া ৪ জনের জনের নাম-পরিচয় পাওয়া যায়নি। পাবনা সিভিল সার্জন অফিসের পরিসংখ্যান কর্মকর্তা অংশুপ্রতীম বিশ্বাস জানান, গত ২৪ ঘন্টায় পাবনার ১৭৩৬ নমুনা পরীক্ষা করে ২০৯ জনের শরীরে করোনা সনাক্ত হয়েছে। এ সময় কেউ মারা যাওয়ার খবর পাওয়া যায়নি।

Previous articleরংপুরে একদিনে আরও ১৬ জনের মৃত্যু, কমেছে শনাক্ত
Next articleরাজারহাটে ড্রেজার মালিককে ৫০হাজার টাকা জরিমানা
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।