জয়নাল আবেদীন: “দশ দিন চোরের একদিন গৃহস্থের” সনাতন এই বাক্যের বাস্তব চিত্র মিলেছে রংপুর নগরীতে।প্রতিদিনই নগরির কোন কোন স্থানে বাই সাইকেল চুরির ঘটনায় পুলিশ অতিষ্ট হয়ে উঠেছে । অবশেষে পুলিশ বাই সাইকেল চুরির নেপথ্যের নায়কদের ধরতে সক্ষম হয়েছে।

রোববার ভোরে বাইসাইকেল চুরির দায়ে দু‘জন সুইপারকে আটক করেছে পুলিশ। এসময় তাদের কাছ থেকে ছোট-বড় ১২টি চোরাই বাইসাইকেল উদ্ধার করেছে । রোববার বিকেলে তাদের দু‘জনকে মহানগর আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। পুলিশ জানায় রংপুর সদর হাসপাতাল চত্বরের সুইপার কলোনিতে অবস্থানকারী দিলীপ লালের ছেলে মানিক লাল ও দ্বীপক বাসফোড়ের ছেলে রাজ কুমার তারা দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন বাসাবাড়িতে সুইপার পেশায় পরিচয় দিয়ে কাজের খোঁজ করতে গিয়ে বাইসাইকেলসহ বিভিন্ন জিনিসপত্র চুরি করে আসছিল। পেশাগত কাজের ফাঁকে তারা সংঘবদ্ধ একটি চোর চক্র গড়ে তোলে। রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কোতোয়ালি থানার এসআই এরশাদ আলী জানান, একটি লিখিত অভিযোগ ও গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রংপুর টাউন হলের সামন থেকে মানিক লালকে আটক করা হয়। পরে বাইসাইকেল চুরির বিষয়ে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে অপর সঙ্গী রাজ কুমারের বাড়িতে চোরাই বাইসাইকেল রাখার ব্যাপারে তথ্য পেয়ে সুইপার কলোনিতে অভিযান পরিচালনা করে রাজ কুমারকে আটকের পর সেখান থেকে দুটি চোরাই বাইসাইকেল উদ্ধার হয়। আটক দুজনের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে সদর হাসপাতাল সুইপার কলোনি, রাধাবল্লভ সুইপার কলোনি, কাচারি বাজারস্থ সুইপার কলোনি থেকে আরও দশটি চোরাই বাইসাইকেল উদ্ধার করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে রোববার বিকেলে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়। কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুর রশিদ জানান, আসামিরা দীর্ঘদিন ধরে সুইপার পেশার পাশাপাশি চুরির মতো অপরাধের সঙ্গে জড়িত। তারা মূলত বিভিন্ন বাসাবাড়িতে সুইপারের কাজের খোঁজ করতে গিয়ে বাইসাইকেলসহ বিভিন্ন জিনিসপত্র চুরি করে কমদামে বিক্রি করত।

Previous articleযুগে যুগে সকল অপশাসকের পতন হয়েছে, কাদের মির্জার পতনও হবে: রাহাত
Next articleএনায়েতপুরে বিএনপি নেতা আমিরুল ইসলাম খান আলিমের রোগ মুক্তি কামনা
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।