ফেরদৌস সিহানুক শান্ত: বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর (৭ মার্চ ১৯৪৯-১৪ ডিসেম্বর ১৯৭১) বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে অংশগ্রহণকারী একজন শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধা। বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধে চরম সাহসিকতা আর অসামান্য বীরত্বের স্বীকৃতিস্বরূপ যে সাতজন বীরকে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ সামরিক সম্মান “বীর শ্রেষ্ঠ” উপাধিতে ভূষিত করা হয় তিনি তাদের অন্যতম।

তিনি মুক্তিবাহিনীর ৭নং সেক্টরের একজন কর্মকর্তা ছিলেন। ১৯৭১ সালের ১৪ ডিসেম্বর তৎকালিন নবাবগঞ্জ মহকুমার রেহাইচরের মহানন্দা নদীর তীরে শত্রুর প্রতিরক্ষা ভাঙ্গার পরপরই শুরু হয় পাকিস্তানি বাহিনীর অবিরাম ধারায় গুলিবর্ষন। ক্যাপ্টেন জাহাঙ্গীর জীবনের পরোয়া না করে সামনে এগিয়ে যান।
যখন আর একটি মাত্র শত্রু অবস্থান বাকি রইল, এমন সময় মুখোমুখি সংঘর্ষে বাংকার চার্জে শত্রুর বুলেটে এসে বিদ্ধ হয় জাহাঙ্গীরের কপালে। শহীদ হন তিনি। তারই সম্মানে চাঁপাইনবাবগঞ্জে সার্কিট হাউস সংলগ্ন নবনির্মিত সড়কটি “শহীদ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর” নামকরণ করা হয়। এ সড়কে তার জীবনীসহ ভাস্কর্য উন্মোচন করা হয়।
আজ সোমবার সকাল ১০ টায় ভাস্কর্যটি উন্মোচন করেন রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার ড. মোঃ হুমায়ুন কবীর।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক মোঃ মঞ্জুরুল হাফিজ, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) দেবেন্দ্রনাথ ওরাঁও, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোঃ জাকিউল ইসলাম, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইফফাত জাহান, চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার মেয়র মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম, ওয়ার্ড কাউন্সিলর জিয়াউর রহমান আরমান, সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর মোসলেমা খাতুন প্রমুখ।

Previous articleএনায়েতপুরে বিএনপি নেতা আমিরুল ইসলাম খান আলিমের রোগ মুক্তি কামনা
Next articleকলাপাড়ায় সিকদার ডেইরী দুগ্ধ খামার হতে পারে একটি মডেল খামার
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।