জয়নাল আবেদীন: রংপুর বিভাগে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত আরও ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ সময় নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন ৫শ০২ জন। এ নিয়ে তিন দিনে বিভাগে করোনায় ৪৪ জনের মৃত্যু হয়েছে।

যা গড়ে প্রতিদিন ১৪ থেকে ১৫ জনে দাঁড়িয়েছে।মঙ্গলবার দুপুরে রংপুর বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. মো. মোতাহারুল ইসলাম সাংবাদিকদের এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।স্বাস্থ্য পরিচালকের কার্যালয় সূত্রে জানায়, সোমবার সকাল ৮টা থেকে মঙ্গলবার সকাল ৮টা পর্যন্ত করোনায় মারা যাওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে রংপুরের ৪জন, দিনাজপুরের ৪জন, গাইবান্ধার ৩জনসহ ঠাকুরগাঁও, পঞ্চগড় ও নীলফামারীর ১জন করে রয়েছেন।এ সময়ে বিভাগে ১ হাজার ৭শ৩৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এতে দিনাজপুরের ১শ১৫ জন, রংপুরের ৮৭ জন, নীলফামারীর ৬৩ জন, পঞ্চগড়ের ৬২ জন, কুড়িগ্রামের ৫৯ জন, গাইবান্ধার ৫৬ জন, ঠাকুরগাঁওয়ের ৩৭ জন ও লালমনিরহাটের ২৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত বিবেচনায় আক্রান্তের হার ২৮ দশমিক ৯৫ শতাংশ।নতুন করে মারা যাওয়া ১৪ জনসহ বিভাগে করোনায় মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৯শ৬৪ জনে। এর মধ্যে দিনাজপুরে ২শ৭৬ জন, রংপুরে ২শ১২ জন, ঠাকুরগাঁওয়ে ১শ৮৬, নীলফামারীতে ৬৯, পঞ্চগড়ে ৬১, লালমনিরহাটে ৫৬, কুড়িগ্রামে ৫৪ ও গাইবান্ধায় ৫০ জন রয়েছেন। ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৪শ৪৭ জন।রংপুর বিভাগের আট জেলায় ৩ আগষ্ট পর্যন্ত ৪৫ হাজার ৯শ২৯ জন করোনা শনাক্ত হয়েছেন। এর মধ্যে দিনাজপুরে ১২ হাজার ৯শ২৫ জন, রংপুরে ১০ হাজার ২শ০২ জন, ঠাকুরগাঁওয়ে ৬ হাজার ২শ৪৩ জন, গাইবান্ধায় ৩ হাজার ৯শ৫১ জন, নীলফামারীর ৩ হাজার ৭শ৪১ জন, কুড়িগ্রামের ৩ হাজার ৭শ০০ জন, লালমনিরহাটের ২ হাজার ৩শ০১ জন এবং পঞ্চগড়ের ২ হাজার ৮শ৬৬ জন রয়েছেন।করোনাভাইরাস শনাক্তের শুরু থেকে এ পর্যন্ত রংপুর বিভাগে ২ লাখ ২০ হাজার ৫শ৪৫ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। বিভাগের আট জেলার মধ্যে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত ও মৃত্যু হয়েছে দিনাজপুর, রংপুর ও ঠাকুরগাঁও জেলায়। এছাড়া সীমান্তঘেঁষা জেলাগুলোয় বেড়েছে শনাক্ত ও মৃত্যু।

Previous articleচাঁপাইনবাবগঞ্জে করোনায় আরও ৪ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ২৪
Next articleইবি শিক্ষার্থীর জালে ধরা পরলো বিরল প্রজাতির মাছ
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।