কামাল সিদ্দিকী: পাবনা প্রেসক্লাবের সম্পাদক, সময় টিভি, বাংলাদেশ প্রতিদিনের পাবনা প্রতিনিধি ও পাবনামেইল২৪ডটকমের সম্পাদক সৈকত আফরোজ আসাদের নামে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা অবিলম্বে প্রত্যাহারের দাবিতে মানববন্ধন করেছে পাবনায় কর্মরত গণমাধ্যমকর্মীরা।

এ সময় তিনদিনের কর্মসূচি ঘোষনা করা হয়। শনিবার (৭ আগষ্ট) দুপুর সাড়ে ১২ টায় পাবনা প্রেসক্লাবের আব্দুল হামিদ সড়কের সামনে ঘন্টাব্যাপী এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে বক্তারা দ্রুত সময়ের মধ্যে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে দায়ের করা হয়রানীমূলক মামলা প্রত্যাহারের দাবী জানানো হয়। একই সাথে প্রধানমন্ত্রীর নিকট এই আইন বাতিলের দাবীও জানানো হয়। পাবনা প্রেসক্লাবের সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক প্রভাষক ইয়াদ আলী মৃধা পাভেলের সঞ্চালনায় আয়োজিত মানববন্ধন কর্মসূচিতে বক্তব্য বক্তব্য দেন পাবনা সংবাদপত্র পরিষদের সভাপতি জৈষ্ঠ সাংবাদিক আব্দুল মতীন খান, পাবনা প্রেসক্লাব সভাপতি এবিএম ফজলুর রহমান, সাবেক সিনিয়র সহসভাপতি কামাল আহমেদ সিদ্দিকী, সহসভাপতি শহীদুর রহমান শহীদ, পাবনা টেলিভিশন সাংবাদিক সমিতির আহবায়ক রাজিউর রহমান রুমী, মাছরাঙা টেলিভিশনের উত্তরাঞ্চলীয় ব্যুরো চীফ উৎপল মির্জা, সাবেক দপ্তর সম্পাদক জহুরুল ইসলাম, রিপোটার্স ইউনিটির সম্পাদক কাজী মাহবুব মোর্শেদ বাবলা, জনকণ্ঠের কৃষ্ণ ভৌমিক, ডেইলী স্টারের আহমেদ হুমায়ুন কবীর তপু, প্রথম আলোর সরোয়ার মোর্শেদ উল্লাস, পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক প্রক্টর আওয়াল কবির জয়, একাত্তর টেলিভিশনের মোস্তাফিজ রাসেল, এটিএন নিউজের রিজভী জয় প্রমুখ। মানববন্ধনে পাবনা প্রেসক্লাবের সভাপতি এবিএম ফজলুর রহমান বলেন, প্রেসক্লাবের পক্ষ থেকে ৩ দিনের কর্মসূচি নেয়া হয়েছে। মামলা বাতিলের দাবী জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্র ও তথ্য মন্ত্রীকে স্মারকলিপি প্রদান করা হবে। প্রতিবাদ সভা ও স্থানীয় পত্রিকা সমুহে প্রতিবাদ হিসেবে কালো করে জায়গা খালি রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। মামলা প্রত্যাহার ও পাবনায় কর্মরত গনমাধ্যম কর্মীদের কাছে নিঃশর্ত ক্ষমা না চাইলে পাবনা- আসনের সংসদ সদস্য, জেলা আওয়ামীলীগের সহসভাপতি খন্দকার আজিজুল হক আরজুর সকল অনিয়ম, অপকর্ম ও দূর্নীতি ধারাবাহিক ভাবে গনমাধ্যমে তুলে ধরা হবে। একই সাথে তার সকল সংবাদ বর্জনের ঘোষনা দেয়া হয়েছে। প্রসঙ্গত, মামলার এজাহার থেকে জানা গেছে, চলতি বছরের ৮ মার্চ সাংসদের পৈতৃক বাড়ি জেলার বেড়া উপজেলার নাটিয়াবাড়ি গ্রামে আমিনপুর থানা-পুলিশ একটি অস্ত্র তৈরি কারখানার সন্ধান পায়। এ সময় অস্ত্র তৈরির অভিযোগে দুই যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়। এ ঘটনা নিয়ে সৈকত আফরোজ সম্পাদিত পাবনা মেইল টোয়েন্টিফোর ডটকমে ‘সাবেক এমপির ভাতিজার বাড়িতে কারখানা, আগ্নেয়াস্ত্র তৈরির সরঞ্জাম উদ্ধার, আটক ২’ শিরোনামে একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। ঢাকার বিজ্ঞ সাইবার ট্রাইব্যুনাল আদালতে গত ৯ জুন সাবেক এই সাংসদ মামলা দায়ের করেন।

এজাহারে সাংসদের দাবি, গ্রেপ্তার ব্যক্তিদের সঙ্গে তাঁর কোনো সম্পর্ক নেই। সাংবাদিক সৈকত আফরোজ তাঁকে সামাজিক ও রাজনৈতিকভাবে হেয় করতেই সংবাদটি প্রকাশ করেছেন। এ কারণে তিনি মামলাটি করেছেন।

 

Previous articleদেশে করোনায় একদিনে আরও ২৬১ জনের মৃত্যু
Next articleনোয়াখালীতে ধর্ষণ মামলার পলাতক আসামি গ্রেফতার
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।