কামাল সিদ্দিকী: পাবনা সুজানগর উপজেলায় ৮ বছর বয়সী এক শিশুকে ধর্ষনের চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। সে স্থানীয় একটি স্কুলে তৃতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী। ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত আব্দুল কাদের (৫৫) পলাতক রয়েছে।

অভিযুক্ত আব্দুল কাদের সাতবাড়িয়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান এস এম সামসুল আলমের বোন জামাই বলে স্থানীয়রা জানায়। স্থানীয়রা জানান, জেলার সুজানগর উপজেলায় সাতবাড়িয়া ইউনিয়নের তারাবাড়িয়া গ্রামের ওই শিশু রোববার সকালে সাতবাড়িয়া বাজারে তার বাবার কর্মস্থলে খাবার নিয়ে আসে। খাবার দিয়ে বাড়ি ফেরার পথে অভিযুক্ত আব্দুল কাদের বাজারে তার নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে শিশুটিকে খাবারের প্রলোভন দেখিয়ে ডেকে নিয়ে ধর্ষনের চেষ্টা করে। এ সময় শিশুটির চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে গেলে অভিযুক্ত কাদের পালিয়ে যায়। স্থানীয়রা শিশুটিকে উদ্ধার করে পরিবারকে খবর দেয়। বিষয়টি নিয়ে সন্ধ্যায় বাজারের একটি ক্লাব ঘরে মিমাংসায় জন্য বসেন। এ সময় অভিযুক্তকে সালিসে হাজির করতে না পারায় স্থানীয়দের একটি অংশ ক্ষিপ্ত হয়ে চেয়ারম্যানের সাথে বাকবিতন্ডে জড়িয়ে পরে। এ নিয়ে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়লে স্থানীয়রা থানা পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ ঘটনা স্থলে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে। সাতবাড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যান এস এম সামসুল আলম জানান, অভিযুক্ত আব্দুল কাদের আমার নিকট আত্বীয় হলেও তার সাথে আমার বা আমার পরিবারের কোন সম্পক নেই। সুজানগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান জানান, রাতেই মামলা দায়েরের জন্য ইউপি চেয়ারম্যান এস এম সামসুল আলম, শিশুটির পিতা ও শিশুটিকে থানায় আনা হয়। শিশুটি বাবা বাদী হয়ে আব্দুল কাদের কে অভিযুক্ত করে মামলা দায়ের করেছেন। ওসি আরো জানান, সোমবার সকালে ঘটনার বিবরন জানাতে শিশুটিকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

Previous articleচাঁপাইনবাবগঞ্জে র‌্যাবের অভিযানে ইয়াবাসহ আটক ১
Next articleহেলেনা-পরীমনিদের ১২টি মামলা তদন্ত করতে চায় র‌্যাব
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।