অতুল পাল: পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুল মোতালেব হাওলাদারের বিরুদ্ধে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও ১৫ আগষ্ট শহিদদের ছবি সম্বলিত ব্যানার ছেঁড়ার অভিযোগ এনে উপজেলার বগা ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি আব্দুল মালেক মীর বাদি হয়ে এই নমামলাটি করেন।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে বাউফল সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ২য় আমলী আদালতে ওই মামলা করেন। বিজ্ঞ বিচারক পটুয়াখালীর চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. জামাল হোসেন মামলাটি আমলে নিয়ে আগামী ১০ কার্য দিবসের মধ্যে বাউফল থানার ওসিকে এজাহার নেয়ার নির্দেশ প্রদান করেন বলে জানান মামলার আইনজীবী মো. আরিফুর রহমান রিয়াজ। মামলা সুত্রে জানা গেছে, অভিযুক্তরা খুনি ও অভ্যাস গত অপরাধী ও বহু ফৌজদারী মামলার আসামী। গত সোমবার (৯ আগষ্ট) দুপুর ১২টার দিকে উপজেলার বগা বন্দরের সোনালী ব্যাংকের সামনের সড়কে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও ১৫ আগষ্ট শহিদদের ছবি সম্বলিত ব্যানার টাঙাতে যায় বগা ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি মো. মালেক মীর। এ সময় উপজেলা চেয়ারম্যান আবদুল মোতালেব হাওলাদারের নেতৃত্বে ৫/৬ জন নাম না জানা সন্ত্রাসী দেশীয় অস্ত্র দিয়ে সভাপতি মালেক মীরসহ তার সঙ্গে থাকা আ. জব্বার ও আ. হক জোমাদ্দারকে মারধর করেন এবং ১৫ আগষ্টের ব্যানার ছিঁড়ে ফেলেন। এসময় বাদীর কাছে থাকা ৫ হাজার ৭৫০ টাকা, আ. জব্বারের মানি ব্যাগে থাকা ১০ হাজার ৮৮৪ টাকা ছিনিয়ে নিয়ে যায়। এঘটনায় বাউফল থানায় মামলা না নেওয়ায় আদালতে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুল মোতালেব হাওলাদার ও বগা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মহামুদ হোসেনসহ ৬ জনের নাম উল্লেখ ও আরও ৫/৬ জন অজ্ঞাত আসামী করে মামলা দায়ের করেন। এ বিষয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবদুল মোতালেব হাওলাদার বলেন, যে ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে এ ধরণের কোন ঘটনা ঘটে নাই। এটা সস্পূর্ণ মিথ্যা, ভিত্তিহীন ও বানোয়াট। আমাকে সম্মানহানী করার জন্যই এক নেতা তার লোকজন দিয়ে এ ঘটনা ঘটিয়েছেন। আমি ছাত্রলীগ ও যুবলীগ করেছি, বর্তমানে আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক পদে আছি। আমার দ্বারা জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর ছবি সম্বলিত ব্যানার বা পোষ্টার ছেঁড়া কোনভাবেই সম্ভব নায়। এটা আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র ছাড়া আর কিছুই নয়। এবিষয়ে বাদী পক্ষের আইনজীবী অ্যাড. মো.আরিফুর রহমান রিয়াজ বলেন, বিজ্ঞ আদালত আগামী ১০ কর্ম দিবসের মধ্যে বাউফল থানার ওসিকে সরাসরি এজহার গ্রহণের নির্দেশ প্রদান করেছেন।

Previous articleখেলা করা হলো না শিশু জুনায়েদের, বেপরোয়া মাইক্রোবাস চাপা দিয়ে পালিয়ে গেল
Next articleশার্শায় ৪টি মোটরসাইকেলসহ চোর চক্রের ৩ সদস্য আটক
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।