তাবারক হোসেন আজাদ: লক্ষ্মীপুর সদরের চরভূতি এলাকায় কিশোরির সাথে প্রতারনা, প্রতিবাদ করতে গিয়ে মারধরেে শিকার। অবশেষে- বিয়ের আসর থেকে মোঃ মনির হোসেন (২৮) নামে এক লম্পট বরকে আটক করেছে পুলিশ।

আটককৃত প্রতারক মোঃ মনির হোসেন চরভূতি গ্রামের লোকমান হোসেনের ছেলে। এঘটনায় এলাকাজুড়ে তোলপাড় চলছে।

জানাযায়, গত এক বছর ধরে প্রতিবেশী মোবাশ্বেরার বাপের বাড়ির নুর আলমের মেয়ে মারজাহান আক্তার রেনুর সাথে পরকিয়া সম্পর্ক চলছিলো। বিয়ের প্রলোভন দিয়ে দীর্ঘদিন ধরে অবৈধ মেলামেশা করে আসছিলো। এক পর্যায়ে কিশোরি রেনু অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে। বিষয়টি মনির টের পেয়ে কৌশলে রেনুকে হাসপাতালে নিয়ে বিয়ের আশ্বাস দিয়ে গর্ভের-বাচ্চাটি নষ্ট করে দেয়।

শনিবার (১৪ আগষ্ট) লম্পট মনির অসহায় রেনুকে বিয়ে করবে বলে লক্ষ্মীপুর ঝুমুর সিনেমা হল এলাকায় এনে রাস্তায় রেখে পালিয়ে যায়। একই দিন রাত ১১টায় লক্ষ্মীপুর কাজী অফিসের মাধ্যমে তিন লাখ টাকা দেনমোহরে চরভূতি গ্রামের আব্দুস শহীদের মেয়ে বিবি আছিয়াকে বিয়ে করে মনির।

রোববার (১৫ আগষ্ট) নব বধূ আছিয়ার বাড়িতে পৃতীভোজের আয়োজন করা হয়। মনির স্বজনদের নিয়ে অনুষ্ঠানে উপস্থিত হলে তার প্রেমিকা রেনুও সেখানে উপস্থিত হয়। রেনুর উপস্থিতি দেখে প্রতারক লম্পট মনিরের লোকজন রেনুকে মারধর করে। এসময় ঘটনাটি সদর থানা পুলিশকে জানালে তাৎক্ষণিক এসআই আঃ আউয়াল ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রতারক মনিরকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জসিম উদ্দিন জানান, ঘটনাটি শুনে মনির ও তার প্রেমিককে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। উভয় পক্ষক থেকে শুনে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Previous articleশাহজাদপুরে নারী চিকিৎসককে উত্ত্যক্ত করায় ২ যুবককে ১ বছরের কারাদণ্ড
Next articleপ্রতিবন্ধী ভাতায় সংসার চলেনা, তাই ভিক্ষা করি…
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।