বাংলাদেশ প্রতিবেদক: হিজলার চাঞ্চল্যকর নূরু বাবুর্চি হত্যা মামলার আসামী কাশেম খান ওরফে করাত কাশেমকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় মুলাদী থানা পুলিশ হিজলার হাজারী বাড়ি এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে।

কাশেম খান হিজলা উপজেলার গুয়াবাড়িয়া ইউনিয়নের চরপত্তনীভাঙা গ্রামের ওয়ায়েজ উদ্দীন ওরফে শহীদ খানের ছেলে। তাঁর বিরুদ্ধে নূরু বাবুর্চি হত্যা মামলাসহ একাধিক মামলা রয়েছে বলে জানিয়েছেন পুলিশ। জানা গেছে, গত ৭ আগস্ট হিজলার হিজলা উপজেলার মৃত হাচেন বাবুর্চির পুত্র নূরু বাবুর্চি নিখোঁজ হন। তিন দিন পরে ১০ আগস্ট বিকালে মুলাদী উপজেলার নয়াভাঙ্গনী নদী থেকে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। ওই দিনই তার স্ত্রী ও স্বজনরা লাশ শনাক্ত করেন এবং রাতেই দুলাল বাবুর্চি ও কাশেম খানসহ ১৪জনকে আসামী করে মুলাদী থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। ওই ঘটনার পর থেকেই কাশেম খান পলাতক ছিলেন। বুধবার সন্ধ্যায় কাশেম খান চরপত্তনীভাঙা এলাকার বাদশা হাজারী বাড়ির সামনে দিয়ে সাঁতরে নয়াভাঙনী নদী পাড় হচ্ছিলো। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মুলাদী থানার এস.আই (দ্বিতীয় কর্মকর্তা) কাইউম হোসেন পুলিশ নিয়ে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করেন। এস.আই কাইউম বলেন, মামলার পর থেকে কাশেম খান পলাতক ছিলেন। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে চরপত্তনীভাঙা এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। বৃহস্পতিবার আদালতে প্রেরণ করা হবে।

Previous articleমুলাদীতে দুই বছর ধরে বন্ধ রাস্তার কাজ, ভোগান্তিতে শিক্ষার্থী ও স্থানীয়রা
Next articleরংপুর মহানগর যুবলীগের মানবন্ধন
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।