বাংলাদেশ প্রতিবেদক: মুলাদীতে দুই বছরেও হয়নি বাদশা কান্দি রাস্তার পিচ ঢালাইয়ের কাজ। ফলে ভোগান্তিতে পড়েছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। উপজেলার চরকালেখান ইউনিয়নের পূর্ব চরকালেখান গ্রামের বাদশাকান্দি এলাকায় সড়কটি খুড়ে রাখায় খালে পরিণত হয়েছে।

সড়কের পাশ দিয়ে এবং কোথাও হাটু পানি ভেঙে শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও স্থানীয়রা অনেক কষ্ট করে যাতায়াত করছেন। জানা গেছে, ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বরে উপজেলার চরকালেখান ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান শাহ আলম আকনের বাড়ির সামনে দিয়ে আবুল সরদারের বাড়ি পর্যন্ত সড়কে পিচ ঢালাইয়ের কাজ শুরু হয়। মাত্র আড়াই কিলোমিটার সড়ক ৬ মাসের মধ্যে কাজ শেষ করার সময় বেঁধে দেয় স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি)। কিন্তু ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান দুই বছরেও কাজ শেষ না করায় ভোগান্তির সৃষ্টি হয়। ১২৫ নং চরকালেখান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক জাকির হোসেন খোকন আকন জানান, এই সড়কটি দিয়ে বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থী, চরকালেখান ডাকঘরের সেবাগ্রহীতা এবং একটি বেসরকারি সংস্থার কর্মকর্তারা যাওয়া আসা করে। সড়কটি আগে ইট বসানো ছিলো। ইট ভেঙে যাওয়ায় এলজিইডি থেকে পিচ ঢালাই করার কাজ শুরু হয়। ২০১৯ সালে ঠিকাদার কাজ শুরু করে ইট উঠিয়ে মাটি কেটে নালার সৃষ্টির করে। তৎকালীন সময়ে বালু ভরাটের কথা থাকলেও ঠিকাদার তা করেননি। ফলে রাস্তাটি খালে পরিণত হয়ে শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও স্থানীয়রা ভোগান্তিতে পড়েছেন। এব্যাপারে ঠিকাদার তামিম আহমেদের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তাকে মুঠোফোনে পাওয়া যায়নি। উপজেলা স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের সহকারী প্রকৌশলী জিয়াউর রহমান বলেন, ঠিকাদারকে দ্রুত কাজ শেষ করার জন্য বলা হয়েছে। তিনি ব্যর্থ হলে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Previous articleপাবনায় প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের স্ব-সহায়ক দলের সদস্যদের নেতৃত্ব বিকাশ ও দল উন্নয়ন বিষয়ক প্রশিক্ষণ
Next articleহিজলার নূরু বাবুর্চি হত্যা মামলার আসামী গ্রেপ্তার
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।