বাংলাদেশ প্রতিবেদক: দেবীগঞ্জ উপজেলার দেবীডুবা ইউনিয়নের দাড়ারহাট অধিকারি পাড়ায় কলা পাকার জন্য ধুপের আগুন থেকে কলা ব্যবসায়ী পরিমলের দু’টি ঘর পুড়ে গেছে। সোমবার রাত ২টার দিকে এ দুর্ঘটনা হয়।

এরই মধ্যে পরিমলের ঘর পুড়ে যাওয়া নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে বিভিন্ন ধরনের গুজব ছড়ানোর চেষ্টা চলছে বলে স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে। এ নিয়ে ধর্মীয়ভাবে কোনো ভুল বোঝাবুঝি যাতে সৃষ্টি না হয় সেজন্য স্থানীয় প্রশাসনের কর্মকর্তারা তৎপর রয়েছেন।

গ্রামবাসী জানান, পরিমল দুই-তিন বছর ধরে কলা বিক্রির ব্যবসা করে আসছেন। সোমবার রাতে পরিমল কলা পাকানোর জন্য ধুপের আগুন দেয়ার সময় অসাবধানতায় আগুন ঘরে লেগে যায়। এতে তার দু’টি ঘর পুড়ে যায়। খবর পেয়ে দেবীগঞ্জ থেকে ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

এ দিকে মঙ্গলবার সকালে উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রত্যয় হাসান, ওসি জামাল হোসেন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। পরে তারা সাংবাদিকদের জানান, কলা পাকানোর জন্য দেয়া ধুপের আগুন থেকে আগুনের সূত্রপাত। এর সাথে অন্য কারো কোনো সম্পর্ক নেই। এ সময় আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত পরিমলের পরিবারকে ত্রাণসামগ্রীও প্রদান করেন ইউএনও।

ধুপের আগুন থেকে ঘরে আগুন লাগার কথা স্বীকার করেছেন পরিমল নিজেও। এ ছাড়া উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল মালেক চিশতী, দেবীডুবা ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক পরিমলের ঘরে কলা পাকানোর ধুপের আগুন লেগেছিল বলে নিশ্চিত করেছেন।

দেবীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জামাল বিষয়টি রেলমন্ত্রী (দেবীগঞ্জ-বোদা) আসনের এমপি নুরুল ইসলাম সুজনকে অবহিত করেছেন। মন্ত্রী এ প্রসঙ্গে বলেন, ‘কলায় ধুপ দিতে গিয়ে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে বলে স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতারা জানিয়েছেন। বিষয়টি যাতে কেউ অন্যভাবে না নেয় সেদিকে নজর রাখতে প্রশাসনকে বলা হয়েছে।’

Previous articleন্যায়বিচার পাওয়ার বদলে কারাগারে যেতে হলো সোহেলকে
Next articleমুলাদীতে জেল জরিমানায়ও থামছে না ইলিশ শিকার
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।