বাংলাদেশ প্রতিবেদক: খুলনার পাইকগাছা উপজেলার আগড়ঘাটা বাজার এলাকায় কপোতাক্ষ নদ থেকে বুধবার অপহৃত কলেজ ছাত্র আমিনুরের (১৯) মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

৭ নভেম্বর মুক্তিপণের দাবিতে আমিনুরকে অপহরণ করা হয়। মুক্তিপণের টাকা নিতে গিয়ে গ্রেফতার অপহরণকারী ফয়সাল আদালতে দেওয়া জবানবন্দিতে আমিনুরকে হত্যা করে লাশ কপোতাক্ষ নদে ফেলে দেওয়ার কথা স্বীকার করে।

নিহত আমিনুর পাইকগাছা উপজেলার কপিলমুনির শ্যামনগর গ্রামের ছুরমান গাজীর ছেলে। তিনি কপিলমুনি কলেজে একাদশ শ্রেণীর ছাত্র ছিলেন।

মামলার তদন্ত এসআই তাকবীর হুসাইন জানান, আমিনুরকে মোবাইল ফোনে ডেকে নিয়ে ঘুমের ওষুধ মেশানো জুস খাইয়ে অজ্ঞান করে দা দিয়ে গলায় ও ঘাড়ে কুপিয়ে জখম করে নদীতে ফেলে দেয় ফয়সাল। পরে আমিনুরের বাবাকে ফোনে অপহরণের কথা বলে ১২ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে সে। রাতে আমিনুল বাড়ি ফিরে না আসায় সকালে তিনি বিষয়টি পুলিশকে জানান। মুক্তিপণের জন্য ফয়সাল আবারও ফোন করলে পুলিশের পরামর্শে তিনি ১০ লাখ টাকা দিতে সম্মত হন। টাকা নিতে গেলে পাইকগাছা ব্রিজের নিচে তাকে আটক করে পুলিশ।

তিনি জানান, জিজ্ঞাসাবাদে ফয়সাল হত্যাকাণ্ডের কথা স্বীকার করেছে। প্রেমিকার কথামতো আরওয়ান ফাইভ মোটর সাইকেল কেনার টাকা যোগাতে আমিনুরকে অপহরণের পরিকল্পনা করে সে। ঘুমের ওষুধ খাওয়ানোর পর তাকে দা দিয়ে কুপিয়ে নদীতে ফেলে দেয় ফয়সাল।

Previous articleসরকারের কাছে দেশ চালানোর টাকা নেই: খন্দকার মোশাররফ
Next articleতিন মাস বন্ধ থাকবে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের রাতের ফ্লাইট
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।