ফেরদৌস আলী: শেরপুরের ঝিনাইগাতী উপজেলার নলকুড়া ইউনিয়নের নলকুড়া-রাংটিয়া মৌজার মহারশি নদীতে গত ২০১৩ সালে জাপান ইন্টারন্যাশনাল কর্পোরেশন এজেন্সি (জাইকা)’র অর্থায়নে এবং এলজিইডি শেরপুরের বাস্তবায়নে মহারশি পানি ব্যবস্থাপনা সমবায় সমিতির নামে একটি রাবার ড্যাম নির্মাণ করা হয়।

রাবার ড্যামটি নির্মাণের পর থেকে এ উপজেলার ১ হাজার ২ শত হেক্টর জমি বোর আবাদের আওতায়ভুক্ত হয়। আসছে বোর মৌসুমে আরো ১ হাজার ২ শত হেক্টর জমি আবাদের আওতায় আনতে প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। এছাড়া রাবার ড্যাম থেকে গড়িয়ে পড়া অতিরিক্ত পানি দিয়ে উপজেলার ৪ ইউনিয়নের বনকালী, দিঘীরপাড়, আহম্মদনগর,হলদীবাটা, বনগাও, চতল, হাতীবান্ধা ও তিনানী বাজার পর্যন্ত প্রায় ৫ হাজার হেক্টর জমিতে বোর চাষ করা হয়। এতে অনেক সময় ঝিনাইগাতীতেই পানির মহাসংকট দেখা যায়।

অপরদিকে ঝিনাইগাতী উপজেলার মহারশি নদীর উত্তর হলদীগ্রামের মৃত মতিউর রহমানের ছেলে আব্দুল্লাহ’র বসত ভিটায় জাপান ইন্টারন্যাশনাল কর্পোরেশন এজেন্সি (জাইকা)’র অর্থায়নে এবং এলজিইডি শেরপুরের বাস্তবায়নে বৃহৎ পরিসরে নির্মিত হচ্ছে পানির হাউজ। সে হাউজ থেকে ৪কি:মি: পাইপ লাইন দিয়ে পানি সরবরাহ করে নিয়ে যাওয়া হবে নালিতাবাড়ী উপজেলার বিভিন্ন অংশে। এতে প্রতিবাদ শুরু হয় ঝিনাইগাতী উপজেলার রাবারডেম সংলগ্ন ও আশপাশ বিভিন্ন এলাকার চাষীদের মাঝে।

এরই ফলশ্রুতিতে শান্তিপুর্ণ সমাধানের জন্য ১৬নভেম্বর মঙ্গলবার এক জরুরি সভার আহবান করেন ঝিনাইগাতী উপজেলা প্রশাসন। উক্ত জরুরী সভা উপজেলা পরিষদ হল রুমে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফারুক আল মাসুদের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, শেরপুরের জেলা প্রশাসক মোমিনুর রশীদ। এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, স্থানীয় সরকার মন্ত্রনালয়ের উপ-সচিব এটিএম জিয়াউল হক, উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ এসএমএ ওয়ারেজ নাইম, এলজিইডি’র নির্বাহী প্রকৌশলী মোস্তাফিজুর রহমান, সহকারী কমিশনার জয়নাল আবেদীন, কৃষি কর্মকর্তা হুমায়ুন কবির, উপজেলা প্রকৌশলী মোজাম্মেল হক, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা আব্দুল মান্নান, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান লাইলী বেগম, নলকুড়া ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মো. মজনু মিয়া, উপজেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি আবুল কালাম আজাদ, উপজেলা যুবলীগের সেক্রেটারী শাহ আলম সহ স্থানীয় সাংবাদিক ও রাবারডেম সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিবর্গ।

সভায় উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ এসএমএ ওয়ারেজ নাইমসহ অন্যান্য বক্তারা ঝিনাইগাতী উপজেলার চাহিদা না মিটিয়ে নালিতাবাড়ীতে পাইপ লাইন না দেওয়ার বিষয়ে মত প্রকাশ করেন। আলোচনা সভা শেষে জেলা প্রশাসক মোমিনুর রশীদ সহ উপস্থিত সকলেই নির্মাণাধীন পাইপলাইন পরিদর্শনে উপজেলার হলদীগ্রামের জিরো পয়েন্টে যান এবং সরেজমিনে পরিদর্শন করেন। সেই সাথে আগামী ২০ নভেম্বর বিকালে রাবারডেম সংলগ্ন এলাকায় স্থানীয় সংসদ সদস্য আলহাজ প্রকৌশলী একেএম ফজলুল হক এর উপস্থিতিতে সভার আহবায়ন করা হয়। উক্ত সভার মাধ্যমেই এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হবে বলে জানা গেছে।

Previous articleটাঙ্গুয়ার হাওর হতে অবৈধ নেটজালের বাঁধ উচ্ছেদ
Next articleস্বাস্থ্যের নথি গায়েব, ৪ জনকে সাময়িক বরখাস্ত
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।