এস এম শফিকুল ইসলাম: জয়পুরহাটের কালাই উপজেলার মাত্রাই ও আহম্মেদাবাদ ইউপি নির্বাচনে আচরণবিধি লংঘনের দায়ে মোবাইল কোর্টের বিচারক ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট আওয়ামী লীগের দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর ২৫ হাজার টাকা জড়িমানা আদায় করেছেন।

গত সোমবার রাত পৌনে ৯টার দিকে আওয়ামী লীগের ওই দুই প্রার্থীর এ জড়িমানা আদায় করা হয়। নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, তৃতীয় ধাপে অথাৎ আগামী ২৮ নভেম্বর কালাই উপজেলার ৫টি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। প্রতীক বরাদ্দের পর এলাকায় প্রচার-প্রচারণাও শুরু হয়েছে। প্রত্যক প্রার্থী দুপুর ২টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত নির্বাচনী প্রচারণা চালাতে পারবেন। সে অনুযায়ী প্রার্থীরা তাদের প্রচার প্রচারণা চালিয়ে আসছেন। এরই মধ্যে এলাকার আইনশৃঙ্খা রক্ষার্থে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা শুরু করা হয়েছে। গত সোমবার রাত ৮টার পর উপজেলার মাত্রাই ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের নৌকা মার্কার প্রার্থী আ ন ম শওকত হাবীব তালুকদার লজিকের মাইক প্রচার অব্যাহত থাকায় ১০ হাজার টাকা জড়িমানা এবং প্রচার মাইক জব্দ করা হয়। এছাড়া রাত পৌনে ৯টার দিকে আহম্মেদাবাদ ইউনিয়নের হাতিয়র বাজার এলাকায় আওয়ামী লীগের নৌকা মার্কার প্রার্থী আলী আকবর মাইক বাজিয়ে জনসভা করার পর খাবারের ব্যবস্থা করায় ১৫ হাজার টাকা জড়িমানা আদায় করেন মোবাইল কোর্টের বিচারক ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ রিফাতুল ইসলাম। মোবাইল কোর্টের বিচারক ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ রিফাতুল ইসলাম বলেন, নির্বাচনী আচরণবিধি লংঘন করে রাত ৮টার পর প্রচার প্রচারনা চালানোর জন্য চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের দুই প্রার্থীর ২৫ হাজার টাকা জড়িমানা আদায় করা হয়েছে এবং এক প্রার্থীর প্রচার মাইক জব্দ করা হয়েছে।

Previous articleদ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে জয়পুরহাটে বিএনপির লিফলেট বিতরণ
Next articleচাঁপাইনবাবগঞ্জ সীমান্তে ৫৯ বিজিবি’র হেরোইন উদ্ধার
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।