বাংলাদেশ প্রতিবেদক: জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ সানন্দবাড়ী ডিগ্রী কলেজের শিক্ষক আক্রামুজ্জামান পাহলোয়ান স্ত্রীকে হাতুড়ি পেটা করে নিজেই গিয়ে থানায় হাজির হয়েছেন।

বুধবার আদালতের মাধ্যমে ওই শিক্ষককে জেলে পাঠিয়েছে দেওয়ানগঞ্জ মডেল থানা পুলিশ। তার বিরুদ্ধে ৫৪ ধারায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

জানা গেছে, গত সোমবার রাতে দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার চর আমখাওয়া ইউনিয়নের সানন্দবাড়ী ডিগ্রী কলেজের শিক্ষক মো: আক্রামুজ্জামান পাহলোয়ান দেওয়ানগঞ্জ পৌরসভার ৫ নম্বর ওয়ার্ডের রামপুরা গ্রামের বাড়ীতে তার স্ত্রী স্কুলশিক্ষিকা লতিফা পারভীনকে হাতুড়ি দিয়ে মাথাসহ দেহের বিভিন্ন স্থানে বেদম পিটিয়ে গুরুতর আহত করেন। পরে তিনি দেওয়ানগঞ্জ মডেল থানায় গিয়ে আত্মসমর্পন করেন। বর্তমানে তার স্ত্রীর অবস্থা গুরুতর।

প্রতিবেশীরা জানান, দীর্ঘদিন ধরে কলেজশিক্ষক আক্রামুজ্জামান পাহলোয়ান ও স্ত্রী স্কুলশিক্ষিকা লতিফা পারভীনের মধ্যে পারিবারিক কলহ চলে আসছিল।
হাতুড়ি পেটা করার পর প্রতিবেশীরা গুরুতর আহত ওই শিক্ষিকাকে উদ্ধার করে দেওয়ানগঞ্জ সরকারী হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করেন।

দেওয়ানগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহব্বত কবির এ প্রতিনিধিকে জানান, হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে স্ত্রীকে গুরুতর আহত করে থানায় এসে আত্মসমর্পন করেন কলেজশিক্ষক আক্রামুজ্জামান পাহলোয়ান। তার বিরুদ্ধে ৫৪ ধারায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। বুধবার তাকে জামালপুর জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

Previous articleধর্ষণ মামলায় মামুনুল হকের বিরুদ্ধে সাক্ষ্যগ্রহণ
Next articleবঙ্গবন্ধুর ‘স্বপ্নের সোনার বাংলা’ গড়তে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে: রাষ্ট্রপতি
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।