সুমন গাজী: গাজীপুর প্রতিনিধিঃ গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের সড়ক প্রশস্তকরণে ক্ষতিগ্রস্ত নাগরিকদের প্রচলিত পদ্ধতিতে ক্ষতিপূরণের ব্যবস্থা করা হবে। এ ক্ষেত্রে সরকারের সংশ্লিষ্ট মহলের পরামর্শ ও সহযোগিতা নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। যেসব উন্নয়নকাজ চলছে ক্ষতিপূরণের ব্যবস্থা রেখে সেগুলো অব্যাহত রাখা হবে।

রোববার (২৮ নভেম্বর) গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের ভারপ্রাপ্ত মেয়র হিসেবে আনুষ্ঠঅনিক দায়িত্বগ্রহণ করেন কাউন্সিলর আসাদুর রহমান কিরণ। তিনি তাঁর বক্তব্য প্রদানকালে ওইসব কথা বলেন। তিনি বলেন, মহানগরের প্রথম সভায় যেখানে প্যানেল মেয়র গঠন করতে হয়ে সেখানে এ প্রক্রিয়াটি গত তিন বছরে করা হয়নি।

দায়িত্বগ্রহণের দিন দুপুর সাড়ে ১২ টায় শুরু হওয়া অনুষ্ঠান শেষ হয় বিকেল সাড়ে ৩ টায়। সকাল ১০টা থেকে সিটি কর্পোরেশনের বিভিন্ন ওয়ার্ড থেকে নাগরিকেরা নগর ভবনে আসতে থাকেন। মহানগর আওয়ামীলীগ ও অঙ্গ সংগঠণসমূহের বিভিন্ন ইউনিটের নেতা-কর্মীদের নেতৃত্বে নাগরিকেরা নগর ভবনে জড়ো হন। পরে বেলা ১২টার দিকে বহিষ্কৃত মেয়র জাহাঙ্গীর আলমের বিরুদ্ধে নানা ধরণের শ্লোগান দিয়ে সমবেতরা নগর ভবনের সম্মেলনকক্ষে ভীড় জমান। এসময় ভারপ্রাপ্ত মেয়র আসাদুর রহমান কিরণকে সাথে নিয়ে ভবনের সম্মেলনকক্ষে প্রবেশ করে। সম্মেলনকক্ষে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, প্রয়াত সাংসদ আহসানউল্লাহ মাস্টার, কবি-সাহিত্যিক, জাতীয় চার নেতা, মুক্তিযুদ্ধমন্ত্রী সহ সিটি করপোরেশনের পূর্ববর্তী মেয়রদের ছবি সাঁটানো রয়েছে। একপর্যায়ে বিক্ষুব্ধরা ওইসব ছবির সারি থেকে বহিষ্কৃত মেয়রের ছবি টেনে নামিয়ে ফেলে। পরে একেক করে বিভিন্ন শ্রেণী পেশার প্রতিনিধিরা বক্তব্য দেন।

বক্তব্য দেওয়ার জন্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রউফ নয়নের নাম ঘোষণা করলে উপস্থিত বিক্ষুব্ধরা “জাহাঙ্গীরের দালালরা হুঁশিয়ার সাবধান” বলে শ্লোগান দিতে থাকে। অনুষ্ঠানের সঞ্চালক ও সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আমিনুল ইসলাম তাৎক্ষণিক আরেকজন বক্তার নাম ঘোষণা করলে পরিস্থিতি শান্ত হয়।

গাজীপুর মহানগর আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি অ্যাডভোকেট ওয়াজউদ্দিন মিয়া বলেন, গাজীপুরের দুইজন মন্ত্রীকে নিয়ে যেমনি তারা গর্ব করেন তেমনি বহিষ্কৃত মেয়র জাহাঙ্গীর আলমের জন্য সরাদেশে লজ্জিত হয়েছেন।

কাউন্সিলর নুরুল ইসলাম নূরু বলেন, সেবা করার জন্য নির্বাচিত হয়েছিলেন কিন্তু পরিস্তিতির কারণে গোলাম হতে হয়েছে। সিটি করপোরেশনে প্রতি বছর কমপক্ষে ২ হাজার কোটি টাকা অভ্যন্তরীন রাজস্ব আয় হয়েছে। অথচ তারা এসব অর্থেরও কোনো হিসাব পাননি। প্রধানমন্ত্রী হাজার হাজার টাকা উন্নয়ন বরাদ্দ দেওয়ার কথা শোনেছি গত তিন বছরে এগুলো কোথায় এবং কীভাবে খরচ হয়েছে তার কোনো হিসাব পাইনি।

কাউন্সিলর শাহজাহান সাজু বলেন, অহংকার ও দম্ভের পতন হয়েছে। কাউন্সিলর আব্দুল্লাহ আল মামুন মন্ডল বলেন, কারও ছাতা বা জুতা টানার জন্য তারা কাউন্সিলর হননি। যার যার দায়িত্ব পালনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সহযোগিতা করেন। গাজীপুরবাসী লুটপাট ও দুঃশাসন থেকে মুক্তি পেয়েছে।

টঙ্গী থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা ফজলুল হক বলেন, বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে কটুক্তির জন্য বহিষ্কৃত মেয়র জাহাঙ্গীর আলমকে দেশ থেক উৎখাত করতে হবে।

দায়িত্ব হস্তান্তর ও দায়িত্বগ্রহণ অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন গাজীপুর মহানগর আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা আতাউল্লাহ মন্ডল, সহ-সভাপতি মতিউর রহমান, ভিপি আফজাল হোসেন সরকার রিপন, প্যানেল মেয়র অ্যাডভোকেট আয়েশা আক্তার, টঙ্গী থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি ফজলুল হক, মহানগর আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মহিউদ্দিন, কাজী ইলিয়াস, মহানগর যুবলীগের আহবায়ক কামরুল আহসান সরকার রাসেল প্রমূখ।

Previous articleউন্নয়নশীল দেশে উত্তরণের বিষয়ে জাতিসঙ্ঘে প্রস্তাব গ্রহণ মহান অর্জন: প্রধানমন্ত্রী
Next article‘বেআইনিভাবে রাজনীতির জন্য বিএনপি খালেদা জিয়াকে অসুস্থতার অজুহাতে বিদেশে পাঠাতে চায়’
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।