জি.এম.মিন্টু: যশোরের কেশবপুর ইউপি নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থীর প্রচার মাইকের উপর হামলা, ভাংচুরের ঘটনায় দুইজন আহত হয়ে কেশবপুর হাসপাতালে ও দুইজন খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। এ ঘটনায় রিটার্নিং অফিসার বরাবর অভিযোগ করা হয়েছে।

জানা গেছে, কেশবপুর উপজেলার সদর ইউনিয়নের স্বতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান অধ্যাপক আলাউদ্দীন আলার মোটরসাইকেল প্রতীকের প্রচার মাইকের উপর সোমবার দ্#ু৩৯;দফায় হামলা করে নৌকা মার্কার কর্মীরা। স্বতন্ত্র প্রার্থী অধ্যাপক আলাউদ্দীন বলেন, তার পক্ষের প্রচার মাইকের গাড়ি দুপুরে আলতাপোল তেইশমাইলে পৌছানোর পর নৌকার প্রতীকের প্রার্থীর ভাই শম্ভুর নের্তৃত্বে তাদের উপর হামলার চেষ্টার কালে তারা দ্রুত স্থান ত্যাগ করে। পরে সন্ধ্যায় সুজাপুরে সদর ইউনিয়ন পরিষদের সামনে ২য় দফা হামলা করে ইজিবাইক ও প্রচার মাইক ভাংচুর করে। এসময়ে বাহাদুর (৪০) ইজিবাইক চালক মূলগ্রামের ইসমাইল হোসেন সানার পুত্র ইব্রাহিম সানা (৩৫) ও প্রচারক একই গ্রামের আনায়ারুল ইসলামের পুত্র মোঃ হাবিব (৩০) গুরুতর আহত হয়ে কেশবপুর হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। এ ঘটনায় রিটার্নিং অফিসার বরাবর অভিযোগ করা হয়েছে। এদিকে মঙ্গলকোট ইউনিয়নে নৌকার কর্মীদের সাথে স্বতন্ত্র প্রার্থী মনোয়ার হোসেনের কর্মীদের মধ্যে একাধিক বার হামলার ঘটনা ঘটায় উভয় পক্ষই একাধিক কর্মী আহত হয়েছে। এরমধ্যে দুই জনকে গুরুতর অবস্থায় খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

Previous articleরংপুরে ৩ কেজি শুকনা গাঁজা উদ্ধারসহ ২ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার
Next articleউল্লাপাড়ায় ১০০ টাকা আবেদন খরচে পুলিশে নিয়োগ পাওয়া ১৩ জনকে সম্বর্ধনা
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।