জি.এম.মিন্টু: যশোরের কেশবপুর উপজেলার পল্লীতে দূর্বৃত্তরা রাতের আধাঁরে ৪ কৃষকের ৩২ শতক জমির আলু, পেঁয়াজ, রসুন, ফুলকপি, পাতাকপিসহ বিভিন্ন প্রজাতির সবজি নষ্ট করে দিয়েছে। এতে তাঁদের প্রায় ২ লক্ষ টাকার ক্ষতি হয়েছে।

এ ঘটনায় ঐ গ্রামের অন্য কৃষকরাও আতংকিত হয়ে পড়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে বৃহস্পতিবার গভীর রাতে। সরেজমিনে দেখাগেছে, প্রতিবছর শীত মৌসুমে কেশবপুর উপজেলা ব্যাপি বিভিন্ন প্রাজাতির সবজি চাষাবাদ হয়। বিভিন্ন এনজিও ব্যাংক থেকে ঋন নিয়ে কৃষকরা এ সব সবজি চাষাবাদ করে। এ সবজি স্থানীয় বাজারে চাহিদা মিটিয়ে বাইরের উপজেলায় রপ্তানি করে থাকে। এ মৌসুমে অনেক কৃষকরা সবজি বিক্রি করে তাঁদের সংসারও চালান।

কেশবপুর উপজেলার সাগরদাঁড়ি ইউনিয়নে মির্জাপুর গ্রামের কপোতাক্ষ নদীর ধারে মফেজ উদ্দিন সানার পুত্র হারুনার রশিদ, মিজানুর রহমান, আনিছুর রহমান ও একই গ্রামের মৃত আরশাদ সানার পুত্র কামরুল সানার ৩২ শতক জমির আলু, পেঁয়াজ, রসুন, ফুলকপি, পাতাকপিসহ বিভিন্ন প্রজাতির ফসল দূর্বৃত্তরা রাতের আধাঁরে উঁপড়ে ফেলেছে। এ ঘটনায় ঐ গ্রামের অন্য কৃষকরাও তাদের ফসল নিয়ে আতংকিত হয়ে পড়েছে। কৃষক হারুনার রশিদ বলেন, এনজিও থেকে ঋন নিয়ে সবজি চাষ করেছি কিন্তু বৃহস্পতিবার রাতের আধাঁরে কে বা কারা আমাদের ৩২ শতক জমির বিভিন্ন প্রজাতির সবজি নষ্ঠ করে দিয়েছে। কৃষক আব্দুল করিম সানা বলেন, বর্তমানে সবজির বাজার অন্য বছরের ন্যায় খুব চড়া। দূর্বৃত্তদের হাত থেকে সবজি রক্ষার জন্য রাত জেগে পাহারা দিচ্ছি। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় অভিযোগের প্রস্তুতি চলছিল।

Previous articleআমাদের লড়াই আরো বেগবান হচ্ছে: মির্জা ফখরুল
Next articleযদি ১০টা মার্ডারও করা লাগে তাই করবেন: নৌকার চেয়ারম্যান প্রার্থীর ছেলের হুমকি
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।