বাংলাদেশ প্রতিবেদক: পিরোজপুরের ইন্দুরকানীতে নতুন বই পায়নি মাধ্যমিকের শিক্ষার্থীরা। ওই এলাকায় সময়মত নতুন পাঠ্যবই না আসায় বছরের প্রথম দিনে নতুন বই পায়নি মাধ্যমিকের শিক্ষার্থীরা।

প্রাথমিকেও তৃতীয় থেকে পঞ্চম শ্রেনীর শিক্ষার্থীরা ৫০ ভাগ বই পেয়েছে।

সরকার করোনার জন্য বই উৎসব না করে চার ভাগে ভাগ করে শিক্ষার্থীদের মাঝে বই দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। সে হিসেবে মাধ্যমিক স্তরে ষষ্ঠ শ্রেণীর বই বিতরনের কথা ছিল। কিন্ত সময়মত বই না পৌঁছায় মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের কোনো শিক্ষার্থী নতুন বই পায়নি।

উপজেলার মাদরাসাগুলোতে ষষ্ঠ শ্রেণীর বই পেলেও সপ্তম, আস্টম ও নবম শ্রেণীতে শুধুমাত্র আইসিটি বই এসেছে। মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ষষ্ঠ শ্রেণীর কোনো বই আসেনি। সপ্তম ও অস্টম শ্রেণীতে আংশিক এবং নবম শ্রেণীতে শুধুমাত্র গ্রুপের বই এসেছে।

অপরদিকে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে তৃতীয়, চতুর্থ এবং পঞ্চম শ্রেণীতে ৫০ শতাংশ বই এখনো আসেনি।

ইন্দুরকানী মেহেউদ্দিন পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যারয়ের প্রধান শিক্ষক সেলিম খান জানান, ষষ্ঠ শ্রেণীর বই না আসায় তারা বিতরণ করতে পারেনি। অন্যান্য ক্লাশের বই আংশিক পাওয়া গেছে।

বালিপাড়া ইউনিয়ন আলিম মাদরাসার অধ্যক্ষ আব্দুর রহিম খান জানান, মাদরাসার সপ্তম থেকে নবম শ্রেণীর শুধুমাত্র আইসিটি বই এসেছে।

উপজেলা শিক্ষা অফিসার মো: শহিদুল ইসলাম জানান, তৃতীয় থেকে পঞ্চম শ্রেণীর ৫০ শতাংশ বই পথে আছে। বাকি সব বই এসেছে এবং বিতরণ করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে ইন্দুরকানী উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মীর এ কে এম আবুল খায়েরের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি একটু বাইরে আছি। আগামী দিন অফিসে আসেন, কাগজপত্র দেখে বলব।

Previous articleভারতে খনিতে ধস: বহু শ্রমিকের মৃত্যুর আশঙ্কা
Next articleবিএসআরআই পরিচালক কৃষিবিদ ড. সমজিৎ পাল আর নেই
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।