বাংলাদেশ প্রতিবেদক: নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে কু-প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় এক নারীর পোল্ট্রি ফার্মে হামলা চালিয়ে ৬০০ মুরগীর বাচ্চা মেরে ফেলেছে বখাটেরা। শনিবার বিকেলে উপজেলা জামপুর ইউনিয়নের বুরুমদী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় রোববার দুপুরে পোল্ট্রি ফার্মের মালিক শাহনাজ বেগম সোনারগাঁও থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

থানার দায়ের করা অভিযোগ থেকে জানা গেছে, উপজেলা জামপুর ইউনিয়নের বরুমদী এলাকার সৌদি প্রবাসী নেছার আহমেদের স্ত্রী শাহনাজ বেগম তার স্বামী বাড়িতে না থাকায় বাড়ির পাশে তিনি একটি দোকান ও একটি পোল্ট্রি ফার্ম পরিচালনা করে আসছেন। তার একটি ১৭ বছরের মেয়ে দোকানে দোকানদারী করে আসছে।

গত কয়েকদিন ধরে ওই এলাকার সাদেক মিয়ার বখাটে ছেলে সাজ্জাদ হোসেন দোকানে এসে শাহনাজ বেগমের মেয়েকে উত্যক্ত করাসহ অশালীন কুরুচিপূর্ণ কথাবার্তা বলে কু-প্রস্তাব দিতে থাকে। এতে রাজি না হওয়ায় বখাটে সাজ্জাদ হোসেন বিভিন্ন সময় ভয়ভীতি ও ক্ষয়ক্ষতির হুমকি দেয়।

গত শনিবার বিকেলে বাড়িতে কেউ না থাকায় সাজ্জাদ হোসেন তার বখাটে সাঙ্গপাঙ্গদের নিয়ে শাহনাজের বাড়িতে প্রবেশ করে তার মুরগীর খামারে হামলা চালায়। তারা খামারে থাকা ৬০০ মুরগীর বাচ্চা পায়ের পিষে মেরে ফেলে।

এলাকাবাসী জানান, সাজ্জাদ হোসেন একজন বখাটে, উশৃংখল ও মাদকসেবী। সে এলাকায় বখাটেপনা করে বেড়ায়। কেউ প্রতিবাদ করলে তাকে মারধরসহ ভয়ভীতির হুমকি দেয়।

অভিযোগে শাহনাজ বেগম জানান, আমার স্বামী বাড়িতে না থাকায় আমি সন্তানদের নিয়ে বাড়িতে একটি পোল্ট্রি ফার্ম নির্মাণ করি ও বাড়ির সামনে একটি দোকান দেই। ওই দোকানে আমি ও আমার মেয়ে দোকানদারী করি। বখাটে সাজ্জাদ আমার মেয়েকে বিভিন্ন সময় উত্যক্ত করে নানা খারাপ কথঅ বলে। তার কথায় রাজি না হওয়ায় বখাটে সাজ্জাদ তার বাহিনী নিয়ে আমার ফার্মের ৬শ’ মুরগী মেরে ফেলেছে। এতে আমার ৪০ হাজার টাকা ক্ষতি সাধন হয়।’

সোনারগাঁও থানার ওসি মোহাম্মদ হাফিজুর রহমান জানান, মুরগীর খামারে হামলার ঘটনায় একটি অভিযোগ গ্রহণ করা হয়েছে। তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Previous article‘কাজলা দিদি’ কবিতা মুদ্রণে লাইনে লাইনে ভুল বোর্ড বইয়ে
Next articleদেশে করোনায় আরও ২৯ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ৮ হাজার ৩৪৫
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।