তাবারক হোসেন আজাদ: লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জে বৃদ্ধা মা-কে কুপিয়ে জখমের পর মৃতদেহে আগুন লাগিয়ে হত্যা করেছে ছেলে। ক্রোধের বশবর্তী হয়ে বৃহস্পতিবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) রাতের কোন এক সময় ঘাতক ছেলে মিলন (২৬) তার মা আমেনা বেগমকে (৬০) হত্যা করে বলে জানায় পুলিশ ও এলাকাবাসী।

সকালে পুলিশ পুড়িয়ে দেওয়া মৃতদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতালে প্রেরণ করে। এ ঘটনায় ঘাতক মিলনকে আটক করেছে রামগঞ্জ থানা পুলিশ ।

উপজেলার নোয়াগাঁও ইউনিয়নের আশারকোটা গ্রামের ওহাদ আলী ব্যাপারী বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে । নিহত আমেনা বেগম ওই বাড়ির মৃত আলী আকবরের স্ত্রী। তিন ছেলে সন্তানের জননী, ঘাতক মিলন তার ছোট ছেলে।

নোয়াগাঁও ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ড ইউপি সদস্য মো. নুরুল আমিন জানান, মিলন মানষিকভাবে অসুস্থ। বাড়িতে সে এবং তার মা একাই বসবাস করতো। বুধবার সন্ধ্যায় মিলনের মা আমেনা বাপের বাড়ি থেকে আসে। রাতে তারা ঘরে ঘুমিয়ে পড়লে রাতের কোন এক সময় মিলন তার মাকে কুপিয়ে জখমের পর কম্বল পেঁচিয়ে আগুন লাগিয়ে হত্যা করে। ফজরের নামাজের সময় বাড়ির অন্য লোকজন ঘুম থেকে উঠলে ওই ঘর থেকে ধোয়া এবং গন্ধ বের হওয়া বিষয়টি জানতে পারে। এ সময় তারা গিয়ে দেখে আমেনার মৃতদেহে আগুন জ্বলতেছে। পাশেই ছেলে মিলন বসা ছিলো। পরে তারা পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ পুড়ে যাওয়া মৃতদেহটি উদ্ধার করে।

রামগঞ্জের-ইউপি সদস্য নুরুল আমিন আরও জানান, আগুনে মৃতদেহের অনেকাংশ পুড়ে যায়। ঘাতক ছেলেটি মানষিকভাবে অসুস্থ। রামগঞ্জ থানার ওসি এমদাদ হোসেন জানান খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে ঘাতক মিলন কে আটক করা হয়েছে ,মামলা টি প্রক্রিয়াধীন আছে।

Previous articleঈশ্বরদীতে পুলিশের ‘ওপেন হাউজ ডে’র অনুষ্ঠানে ‘মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স’ ঘোষণা
Next articleজ্বালানি তেলের দাম ব্যারেল প্রতি ১০০ ডলার ছাড়ালো
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।