জি.এম.মিন্টু: যশোরের কেশবপুর উপজেলায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে গত ২০ দিনে ইলেকট্িরনিক মিস্ত্রী, স্কুল ছাত্রী, শিশুসহ দু’জনের মৃত্যু হয়েছে। এদিকে মৎস্য ঘেরে গোসল করতে যেয়ে বৈদ্যুতিক মোটরের তারে জড়িয়ে আহত হয়ে এক স্কুল ছাত্র হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

জানাগেছে, উপজেলার কন্দর্পপুর গ্রামে মঙ্গলবার দুপুরে বিদ্যুতায়িত হয়ে আলী হাসান ওরফে ছোট্ট (৪২) নামে এক ইলেকট্রিক মিস্ত্রির মৃত্যু হয়েছে। সে ঐ গ্রামের মৃত আমির হোসেন সানার ছেলে আলী হাসান ওরফে ছোট্ট। তার বাড়িতে ব্যবহৃত মোটরের মেরামত কাজ করার সময় অসাবধনতা বসত বিদ্যুতায়িত হয়ে মারা যায়। পরিবারের লোকেরা তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত্যু ঘোষণা করেন।

এছাড়াও গত ৫ এপ্রিল বিদ্যুতে সংযোগ দেওয়া মোবাইলের চার্জারর পিন (মাথা) মুখে নেওয়ায় অসাবধনতা অবস্থায় বিদ্যুতায়িত হয়ে একই পরিবারের বড় ভাইয়ের ছেলে হেদায়েতুল ইসলাম সানার মেয়ে স্কুল ছাত্রী হাফসা খাতুন (৬) মারা যায়।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার আহসানুল মিজান রুমি জানান, মৃত অবস্থায় তাকে হাসপাতালে আনা হয়। এদিকে মঙ্গলবার একই দিনে উপজেলার সন্যাসগাছা (রয়নাবাজ) গ্রামে বিল্লাল মোড়লের পুত্র নাঈম হোসেন(৯) সহ ৪/৫ জন শিশু পাশ^বর্তি মতিয়ার রহমান শেখের মৎস্য ঘেরে গোসল করতে যেয়ে বৈদ্যুতিক মোটরের তাঁরে জড়িয়ে বিদ্যুৎ স্পৃষ্ঠ হয়ে আমাত্বক আহত হয়ে। গ্রামবাসি তাঁকে উদ্ধার করে কেশবপুর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এঘটনায় আহতের পিতা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে তদন্ত পূর্বক সুষ্ঠু বিচারের জন্য একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন।

Previous articleকোম্পানীগঞ্জে এইচবিবি সড়ক নির্মাণে কোটি টাকার কাজে ব্যাপক অনিয়ম
Next articleরিমনের ছোঁড়া গুলিতেই মারা যায় তাসপিয়া: র‌্যাব
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।