বাংলাদেশ প্রতিবেদক: বগুড়া জেলার ধুনট উপজেলায় বাসরঘরে স্বামীর সহযোগিতায় তার দুলাভাই নববধূকে একাধিকবার ধর্ষণের অভিযোগ ওঠেছে। এ ঘটনায় নববধূর বাবা শুক্রবার রাতে থানায় মামলা করেছেন।

রাতেই অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত প্রধান আসামি আলমগীর হোসেনকে (৩০) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। আলমগীর সিরাজগঞ্জ সদরের ভুরভুড়িয়া গ্রামের রোস্তম আলীর ছেলে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ধর্ষণের শিকার নববধূ (১৮) ধুনট উপজেলার বিশ্বহারিগাছা গ্রামের এক কৃষকের মেয়ে। একই এলাকার সরোয়া-পাঁচথুপি গ্রামের ফেরদৌস আলমের ছেলে মানসিক প্রতিবন্ধী ফরিদুল ইসলামের সাথে ২৩ মার্চ তার বিয়ে হয়। বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা শেষে ওই রাতেই নববধূকে তার বাবার বাড়ি থেকে নিজের বাড়িতে নেয় বরপক্ষ। রাত সাড়ে ১১টার দিকে নববধূ ও তার স্বামী ফরিদুল বাসরঘরে প্রবেশ করে। এ সময় ফরিদুলের ভগ্নিপতি আলমগীর হোসেন শরবতের সাথে ঘুমের ওষুধ মিশিয়ে নববধূকে পান করায়। কিছুক্ষণ পর বাসরঘরের বিছানায় ঘুমিয়ে পড়ে নববধূ।

এরপর ফরিদুলের সহযোগিতায় আলমগীর হোসেন সকাল পর্যন্ত নববধূকে একাধিকবার ধর্ষণ করে। পর দিন সকালে নববধূ ঘুম থেকে উঠে দেখে আলমগীর তার সাথে ঘুমিয়ে আছে। আর তার স্বামী ফরিদুল ইসলাম একই ঘরের পাশের বিছানায় ঘুমিয়ে আছে।

নববধূ বিষয়টি তার স্বামী ও শ্বশুর-শাশুড়িকে জানালে তারা কর্ণপাত করেনি। উল্টো নববধূকে মারধর করে। এ অবস্থায় ২৫ মার্চ রাতেও একই কৌশল অবলম্বন করতে থাকে আলমগীর হোসেন। তখন বিষয়টি টের পেয়ে নববধূ তার বাবাকে মোবাইলফোনে ঘটনাটি খুলে বললে বাবা তাকে স্বামীর বাড়ি থেকে নিজের বাড়ি নিয়ে যায়।

এ ঘটনায় নববধূর বাবা ধুনট থানায় মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় আলমগীর হোসেন, নববধূর স্বামী ফরিদুল ইসলাম ও শ্বশুর-শাশুড়িকে আসামি করা হয়।

এ প্রসঙ্গে ধুনট থানায় ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কৃপা সিন্ধু বালা বলেন, মামলার প্রধান আসামিকে গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। অন্য আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। এছাড়া নববধূর শারীরিক পরীক্ষার জন্য বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এরপর আদালতে তার জবানবন্দি রেকর্ড করা হবে।

Previous articleসাবেক এমপি বদির বিরুদ্ধে আ.লীগের ৩ নেতাকে মারধরের অভিযোগ
Next articleষড়যন্ত্রমূলক মার্কিন চিঠি ইস্যুতে পদক্ষেপ নিতে বাধা দেন কুরেশি
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।