ভূঞাপুরের বিবিএ কন্ট্রাক্ট ৭ রোড এর খালের উপর সুইচ গেটটি এখন গলার কাঁটা

আব্দুল লতিফ তালুকদার: যমুনার অস্বাভাবিক পানি বৃদ্ধির কারনে প্রতি বছর বন্যায় টাঙ্গাইলে ভূঞাপুরের গোবিন্দাসী বাজার, গোবিন্দাসী উচ্চ বিদ্যালয়, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ইউনিয়ন পরিষদ ভবন, ভূঞাপুর নৌ পুলিশ ফাঁড়িসহ সরকারি বেসরকারি অনেক প্রতিষ্ঠান পানিতে ভাসে। এ অঞ্চলে যমুনার তীর রক্ষা বাঁধ না থাকায় প্রতিবছর দুর্ভোগের শিকার হচ্ছে গোবিন্দাসী বাজারের শতশত ব্যবসায়ী ও শিকর্থীরা।

এদিকে বাজারে বন্যার পানি দ্রুত নিকাশ না যাওয়ার দুর্ভোগের একমাত্র কারন দেখছেন ভূঞাপুর- গোবিন্দাসী – বঙ্গবন্ধুরসেতু রোড কন্ট্রাক্ট সেভেন এর ১ নং সুইচ গেটটি। দীর্ঘ দশ বছর ধরে সুইচ গেটের লক প্লেট আটকে থাকার কারনে স্বাভাবিক ভাবে পানি প্রবাহিত হতে পারেনা। ফলে বন্যা এলেই বানের পানিতে ভাসে হাজার হাজার মানুষ।

সুইচ গেটটি এখন এলাকার মানুষের গলার কাঁটা হয়ে দাঁড়িয়েছে। এ কারনে প্রতিবছর ব্যবসায়ীরা আর্থিক ভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছেন, তেমনি ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান গুলো।

এ বিষয়ে বিবিএ কর্তৃপক্ষ জানান, সুইট গেটের সামনে বাজারের আবর্জনা দিয়ে ভরাট হয়ে গেছে। ফলে পানির স্বাভাবিক গতি বাঁধাগ্রস্থ হচ্ছে। আমরা কয়েক দফায় ময়লা আবর্জনা পরিষ্কার করিছি আবারও ভরাট হয়ে গেছে।

এ বিষয়ে গোবিন্দাসী ইউপি চেয়ারম্যান মো. দুলাল হোসেন চকদার বলেন, বিবিএ কর্তৃপক্ষকে অবহিত করার পর তারা লক উঠিয়ে দিয়েছে এবং ময়লা পরিষ্কার করে দিয়েছে। কিন্তু গোবিন্দাসী বাজারের লোকজন আবারও ময়লা দিয়ে খাল ভরাট করে ফেলেছে। সুইচ গেটের নিচে আবর্জনা দিয়ে ভরে যাওয়ার কারনে পানি স্বাভাবিক গতিতে যেতে পারছে না। খালটি খনন করলে পানির প্রবাহ ঠিক থাকবে।

Previous articleকরোনা শনাক্তের হার ১০ শতাংশ ছাড়াল
Next articleকিভাবে বুঝবেন আপনার ওপর হজ ফরজ?
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।