বাংলাদেশ প্রতিবেদক: পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলায় প্রেমিককে বাড়িতে ডেকে নিয়ে শিকল দিয়ে বেঁধে টানা সাত ঘণ্টা নির্যাতন করার অভিযোগ উঠেছে প্রেমিকার পরিবারের বিরুদ্ধে। নির্যাতনের একপর্যায় ওই প্রেমিকের মাথার চুল কেটে অর্ধ ন্যাড়া করে দেয়া হয়েছে।

ঘটনাটি ঘটেছে পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলার সদর ইউনিয়নের উত্তর কাজির হাওলা গ্রামে। নির্যাতনের এ ঘটনায় বুধবার রাতে রাঙ্গাবালী থানায় তিনজনের নাম উল্লেখ করে আরো ৪-৫ জনকে অজ্ঞাত দেখিয়ে একটি মামলা করা হয়।

ইতোমধ্যে দু’ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তারা হলেন প্রেমিকার ভাই মামুন হাওলাদার (২২) ও চাচা রিয়াজ হাওলাদার (৩৫)। তাদের বাড়ি সদর ইউনিয়নের দক্ষিণ কাজির হাওলা গ্রামে।

জানা গেছে, নির্যাতনের শিকার ওই প্রেমিকের নাম ফয়সাল প্যাদা (১৮)। তিনি সদর ইউনিয়নের উনিশ নম্বর গ্রামের ফজলু প্যাদার ছেলে ও রাঙ্গাবালী সরকারি কলেজের দ্বাদশ শ্রেণীর ছাত্র। কলেজপড়ুয়া ফয়সালের সাথে একই ইউনিয়নের দক্ষিণ কাজির হাওলা গ্রামের খবির হাওলাদারের মেয়ে কাছিয়াবুনিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর ছাত্রী আনিশার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। তাদের দীর্ঘদিনের এ প্রেমের সম্পর্ক দুই পরিবারে জানাজানি হয়।

মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়, ঘটনার দিন বুধবার সকাল সাড়ে ১০ টায় আনিশার বাবা খবির হাওলাদার ফোনে ফয়সালকে কল করে মেয়েকে তার হাতে তুলে দেয়ার জন্য বাড়িতে ডাকেন। ফোন পায়ার সাথে সাথেই ফয়সাল তার প্রেমিকার বাড়িতে ছুঁটে যান। বাড়িতে পৌঁছলেই ফয়সালকে পরিকল্পিতভাবে আটকে শিকল দিয়ে হাত-পা বেঁধে বেধড়ক মারধর করা হয়। একপর্যায় মাথার তালুর চুল কেটে ন্যাড়া করে দেয়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে ফয়সালকে উদ্ধার করে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, ফয়সাল নির্যাতনের ঘটনায় তার মা আকলিমা বেগম থানায় মামলা করেন। এ মামলায় নামধারী আসামি প্রেমিকার বাবা খবির হাওলাদার পলাতক রয়েছেন।

রাঙ্গাবালী থানার ওসি দেওয়ান জগলুল হাসান জানান, খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক ঘটনায় জড়িত দু’ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অন্য আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

Previous articleসোনারগাঁওয়ে আওয়ামী লীগের ৭৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন
Next articleকুড়িগ্রাম ফুলবাড়ীতে আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।