মাসুদ রানা রাব্বানী: এলাকাভিত্তিক আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে রাজশাহীতে শ্রমিক নেতার ছেলেকে ডেকে নিয়ে খুন করা হয়েছে। সোমবার (৪ জুলাই) দুপুর তিনটার দিকে মহানগরীর রেলগেট শহীদ এএইচএম কামারুজ্জামান চত্ত্বরে প্রতিবাদ মিছিল শেষে এক বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।

একপর্যায়ে বিক্ষোভকারীরা লাশ নিয়ে মহাসড়ক অবরোধ করেন। প্রতিবাদ সমাবেশে অংশগ্রহণকারীরা নিহত সানির লাশ নিয়ে বিক্ষোভকারীরা হত্যা কান্ডের সাথে জড়িত সকলকে দ্রুত গ্রেপ্তার ও ফাঁসির দাবি জানান। একপর্যায়ে বিক্ষোভকারীরা লাশ নিয়ে মহাসড়কে বসে পড়লে রাজশাহী-চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও নওগাঁ মহাসড়কের সকল প্রকার যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এতে রাস্তায় দীর্ঘ যানজট তৈরি হয়। এ ব্যাপারে বোয়ালিয়া মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মাজহারুল ইসলাম জানান, সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে নিহতের বাবা রফিকুল ইসলাম পাখি বাদী হয়ে বোয়ালিয়া থানায় হত্যা মামলাটি দায়ের করেছেন। মামলায় ৯জন আসামীর নাম উল্লেখ করা হয়েছে। এছাড়াও অজ্ঞাতপরিচয় আর ৯/১০ জনকে আসামি করা হয়েছে। আসামীদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত আছে।

জানা গেছে, গত রোববার (৩ জুলাই) রাত সাড়ে ৯টার দিকে রাজশাহী মহানগরীর হেতেম খাঁ সবজিপাড়া এলাকায় সানি (১৭) নামের এক কিশোরকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। নিহত কিশোর রাজশাহী পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সহসভাপতি রফিকুল ইসলামের ছেলে। এবার এসএসসি পরীক্ষার্থী ছিলেন তিনি। তার বাড়ি নগরীর বোয়ালিয়া থানার দড়িখরবোনা এলাকায়। পুলিশ জানিয়েছে, হেতেমখাঁ সবজিপাড়া এলাকার সমবয়সী কিছু ছেলের সঙ্গে রেলগেট এলাকার সনিসহ আরও কয়েকজনের এলাকাভিত্তিক আধিপত্য বিস্তার নিয়ে বেশ কিছুদিন থেকে বিরোধ চলছিল। এর আগেও এই দুই গ্রুপের মধ্যে একাধিকবার মারামারির ঘটনা ঘটেছে। পরে আবার মীমাংসাও হয়েছে। কিন্তু এই বিরোধের জের ধরেই রোববার (৩ জুলাই) রাতে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের সামনে থেকে সনিকে ডেকে নিয়ে গিয়ে খুন করা হয়।

Previous articleভয়াবহ লোডশেডিংয়ের কবলে রাজশাহীর মানুষ
Next articleকোম্পানীগঞ্জে ৯ রোহিঙ্গা আটক
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।