স্বপন কুমার কুন্ডু: সপ্তাহের ব্যবধানে ঈশ্বরদীতে কাঁচামরিচ দাম ৩০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে । পাইকারি বাজারে প্র্রতি কেজি ৩০ টাকা আর খুচরা বাজারে ৪০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। সপ্তাহের ব্যবধানে দাম কমেছে কেজিতে ৫০-৬০ টাকা আর ১৫ দিনের ব্যবধানে দরপতন হয়েছে কেজিতে ১৫০-১৬০ টাকা। রোববার (২১ আগস্ট) দাম নেমে হয়েছিলো আড়তে বিক্রি হয়েছে ৯০ টাকা কেজি। আর খুচরা বাজারে ১০০ টাকা।

শনিবার (২৭ আগষ্ট) আড়তে পাইকারি ৩০-৩৫ টাকা এবং খুচরা বাজারে ৪০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হতে দেখা গেছে। ঈশ্বরদী বাজারের কাঁচামালের পাইকারি আড়ত ও পৌর কাঁচাবাজার ঘুরে এ তথ্য জানা গেছে।

বাজারের আড়তের ব্যবসায়ী আজাদ জানান, বিগত ১৫ দিন আগে আড়তে বিক্রি হয়েছে ১৮০ টাকা কেজি দরে। আর খুচরা বাজারে দাম উঠেছিল প্রতি কেজি ২০০ টাকা। দাম কমতে কমতে শুক্রবার (২৬ আগষ্ট) থেকে কাঁচামরিচ ৩০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে। বাজারে কাঁচামরিচের সরবরাহ আগের তুলনায় অনেক বেড়েছে বলে জানান তিনি।

আড়তের কাঁচামরিচ বিক্রেতা বশির আহমেদ জানান, ঈশ্বরদীতে বেশিরভাগ মরিচ আসে পাবনার আতাইকুলা, কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা ও বগুড়া থেকে। স্থানীয়ভাবে চাষিরা মরিচের আবাদ করেন না। বাজারে ভারতীয় মরিচ ঢোকার পর দাম কমতে শুরু করে। বাজারে দাম বেশী দেখে কেউ কেউ অপোক্ত মরিচ তুলেও বাজারজাত করেছে। তবে এখন আর ভারতের মরিচের প্রয়োজন নেই। দাম যখন বেড়েছিল তখন মরিচের সরবরাহ কম ছিলো। পাশাপাশি মোকামের বড় ব্যবসায়ীদের কিছুটা কারসাজিও ছিল বলে তিনি জানিয়েছেন।

খুচরা বিক্রেতা মালেক কাঁচামরিচের বিক্রি বেড়েছে জানিয়ে বলেন, দাম বাড়ার সময় খুচরা ক্রেতারা ৫০-১০০ গ্রামের বেশী কিনতো না। এখন দাম কমায় ২৫০-৫০০ গ্রাম এমনকি এক কেজিও কিনছে ।

Previous articleপ্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের নাম ভাঙ্গিয়ে খাস জমি দখল ও বালু উত্তোলনের অভিযোগ ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে
Next articleগরমে হাঁসফাঁস জনজীবন! যমুনার পানিতে শীতল পরশ পেতে দূরন্তপনায় মেতে উঠেছে কিশোররা
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।