জয়নাল আবেদীন: ‘দশ দিন চোরের আর একদিন গৃহস্থের’ সনাতন এই বাক্যের বাস্তব চিত্র মিলেছে রোববার বিকেলে রংপুর নগরির রবার্টসনগঞ্জ এলাকায় । অবৈধভাবে সার মজুত করার অপরাধে জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। সেই সঙ্গে অবৈধ মজুত করা সার কৃষি বিভাগের মাধ্যমে কৃষকের কাছে ন্যায্য মূল্যে বিক্রির ব্যবস্থাও করা হয়।

জানা গেছে আরএন্ডআর ট্রের্ডাসের গুদামে অবৈধভাবে মজুত রেখে দীর্ঘদিন থেকে তারা সার বিক্রি কওে আসছিলেন । এদিকে গোপন সংবাদ পেয়ে রংপুর জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফারহান লাবীব জিসানের নেতৃত্ব আরএন্ডআর ট্রের্ডাসের গুদামে অবৈধভাবে মজুত করা ২হাজার ২শ বস্তা টিএসপি, ডিএপি, এমওপি সার জব্দ করা হয। সেই সঙ্গে নকল টিএসপি সার মজুদ রাখা সন্দেহে নমুনা সংগ্রহ করে ভ্রাম্যমাণ আদালত। পরে তা পরীক্ষার জন্য ল্যাবে পাঠানো হয়। এসময় অবৈধ সার মজুতের দায়ে আরএন্ডআর ট্রের্ডাসের সত্ত্বাধিকারী জসিম উদ্দিনকে ৮০ হাজার টাকা জরিমানা করে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

এসময় উপস্থিত ছিলেন রংপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নুর নাহার বেগম, সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শামীমুর রহমানসহ প্রশাসনের কর্মকর্তা ও মেট্রোপলিটন পুলিশ সদস্যরা।

রংপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নুর নাহার বেগম বলেন, কৃষিবান্ধব সরকারের আমলে অবৈধভাবে সার মজুতকারী কিংবা নকল সার বিক্রেতাদের বিরুদ্ধে আমরা কঠোর অবস্থানে রয়েছি। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে এ গুদামঘরে অভিযান পরিচালনা করে আমরা সারের অবৈধ মজুত পেয়েছি। সেগুলো কৃষি অফিসের মাধ্যমে কৃষকদের কাছে ন্যায্য মূল্যে বিক্রির ব্যবস্থা করা হয়েছে। তিনি বলেন আমাদের এ অভিযান অব্যাহত থাকবে।

Previous articleশিক্ষার্থীর ম্যাসেঞ্জারে অশ্লীল ছবি চেয়ে স্ট্যাটাস, না দেওয়ায় গালিগালাজ হুমকি!
Next articleআক্কেলপুরে হাটের জায়গায় আ’লীগ নেতার বহুতল ভবন নির্মাণ
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।