বাংলাদেশ প্রতিবেদক: রাজশাহীর পবা উপজেলার যৌতুকের জন্য মেয়ে সন্তানের সামনেই স্বামী ও শাশুড়ি মিলে সোনিয়া আক্তার (২২) নামের এক গৃহবধূকে নির্যাতন ও গলা টিপে হত্যা করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

বুধবার সকাল ১০টার দিকে উপজেলার রামচন্দ্রপুর ভবানীপুর পূর্বপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করে। পরে পুলিশ লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। পুলিশ বলছে, ওই গৃহবধূকে নির্যাতনের পর গলা টিপে হত্যা করা হয়।

সোনিয়া পবা উপজেলার কইরা গ্রামের হানিফের মেয়ে। তার স্বামীর নাম নাসির। তিনি একই উপজেলার ভবানীপুর পূর্বপাড়া এলাকার মুঞ্জিলের ছেলে। ঘটনার পর থেকে নাসির পলাতক রয়েছে।

পবা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফরিদ হোসেন সাংবাদিকদের জানান, গৃহবধূর বাবা জানিয়েছেন যৌতুকের দাবিতে তার মেয়েকে গলা টিপে হত্যা করা হয়েছে। এরপর ওই লাশ ঘরের ফ্যানের সাথে ঝুলিয়ে রাখার চেষ্টা করা হয়। কিন্তু শেষ পর্যন্ত সফল হয়নি।

তাদের ৪ বছরের মেয়ে সন্তান নাজমিন পুলিশকে জানিয়েছে, তার সামনেই তার বাবা তার মাকে গলা টিপে মেরেছে। পরে মায়ের লাশে ওড়না পেঁচিয়ে ফ্যানের সাথে ঝেলানোর চেষ্টা করে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত না পেরে, বাড়ি থেকে পালিয়ে যায় তারা।

ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পাওয়া গেলে তার মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যাবে বলে জানান পুলিশ। এ ঘটনার পর তার স্বামী নাসির পালিয়েছেন। তাকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

Previous articleরংপুরের তারাগঞ্জে ডাকাতির সময় ট্রাকসহ ৫ ডাকাত সদস্য আটক
Next articleটাঙ্গাইলে অজ্ঞাত যুবকের লাশ উদ্ধার
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।