মাসুদ রানা রাব্বানী: রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের রাজপাড়া থানার এসআই ওয়ারিশের বিরুদ্ধে মামলার আসামীর কাছে থেকে ঘুষ দাবি ও বিকাশের মাধ্যমে অর্থ নেয়ার অডিও ফাঁস হয়েছে। বুধধবার আসামীদের কাছে থেকে বিকাশের মাধ্যমে অর্থ লেনদেন এমন একটি অডিও ক্লিপ ফাঁস হয়। যার গণমাধ্যম কর্মীদের হাতে আসে।

জানা গেছে, গত ৩ নভেম্বর পূর্ব শত্রুতার জের ধরে রাজপাড়া থানার আইডিবাগান পাড়া এলাকার সেলিমের ছেলে স¤্রাটকে মারপিটের অভিযোগে স¤্রাট বাদী হয়ে চারজনের নাম উল্লেখ করে রাজপাড়া থানায় মামলা করে। সেই মামলার ১ নং আসামী আইডিবাগানপাড়া ইকরামের ছেলে রফি, ২ নং আসামী রফির ভাই সাদি, ৩ নং আসামী কাঁচা ও ৪ নং রবিন। এছাড়াও মামলায় অজ্ঞাত আরও ২-৩ জনের নাম রয়েছে। মামলা নং-৮। আর মামলাটির তদন্ত করার জন্য এসআই ওয়ারিশকে দেয়া হয়।

অডিও সূত্রে জানা যায়, গত ৩ নভেম্বর মামলার পরের দিনেই ১ নং আসামী রফিকে এসআই ওয়ারিশ তার ব্যক্তিগত ফোন নাম্বার থেকে ফোন করে ঘুষ দাবি করে বলে, যে তাদের গ্রেপ্তার করা হবে না কিছু খরচ দিতে হবে। ওই দিন মামলার ১ নং আসামীর কাছে থেকে এসআই ওয়ারিশ ০১৭১৯- ৮৭৯২১২ এই এজেন্ট নাম্বারে ২ হাজার ৪০ টাকা নেয়। পরে তার দাবিকৃত ঘুষের ৫ হাজার টাকার মধ্যে আরো ৩ হাজার টাকা বিকাশের ০১৭৪৬-৬৬০২২২ এই এজেন্টের নাম্বারে নেয় এসআই ওয়ারিশ। তার কিছু দিন পরে ফের ১ নং আসামীকে এসআই ওয়ারিশ তার ব্যক্তিগত ০১৭১৫-৯১০৮৬০ এই ফোন নাম্বার থেকে বলে, ওসি স্যারের জন্য একটা বাজেট কইরো। ওসি স্যার কে দিতে হবে, না হলে সমস্যা হবে। এই বলে ফের ঘুষ দাবি করে। তার কিছু দিন পরে মামলার ৩ নং আসামী কাঁচার কাছে থেকে দুই দফায় বিকাশের মাধ্যমে ৫ হাজার টাকা নেয় এই এসআই ওয়ারিশ। দফায় দফায় মামলার আসামীদের কাছে এসআই ওয়ারিশের ফাঁস হওয়া কথোপকথনের অডিও রেকোর্ডিং-এ শোনা যায়।

এরপর গত ৬ নভেম্বর এসআই ওয়ারিশ মামলার ১ নং আসামীকে ফোন করে জামিনের বিষয় জানতে চায় এবং এসময় পুলিশ ফোর্স এর জন্য চা- নাস্তা খাওয়ার জন্য টাকা দাবি করলে সে এক দিন সময় চায়। গত (৭ নভেম্বর) মঙ্গলবার মামলার ১ নং আসামী আদালত থেকে জামিন নিয়ে রাজপাড়া থানার ডিউটি অফিসারের কাছে সন্ধায় জামিনের রিকল জমা দেন। বিষয়টি এসআই ওয়ারিশ জানতে পারলে রফিকে ফোন দিয়ে রিকল ডিউটি অফিসারকে দেয়ার জন্য গালাগালি করে। রিকলটি তার হাতে না দেয়ায় ক্ষিপ্ত হন তিনি। পরে সন্ধ্যায় মামলার ৩ নং আসামী কাঁচার মুঠোফোনে ফের এসআই ওয়ারিশ তার ব্যক্তগত নাম্বার থেকে ফোন করে ফের ঘুষ দাবি করে। জামিন নেয়ার কারণে ঘুষের টাকা দিতে কাঁচা অস্বীকার করলে তাকে এসআই ওয়ারিশ অকথ্য ভাষায় গালা গালি করে। এ বিষয়ে মামলার আসামীরা জানান, আসামীদের কাছে থেকে পুলিশের এমন ঘুষ নেয়ার ঘটনা পুলিশ বাহীনির চরম অপরাধ।

মামলার হওয়ার পর থেকে এসআই ওয়ারিশের অত্যাচারে ও ঘুষ দাবি দফায় দফায় অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছি বলেও অভিযোগ করেন ওই মামলার আসামীরা। এ বিষয় রাজপাড়া থানার এসআই ওয়ারিশের ০১৭১৫-৯১০৮৬০ এই নাম্বারে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আপনি আসেন দেখা করেন। সাক্ষাৎ করে বিস্তারিত কথা হবে বলে ফোন কেটে দেন। এ ঘটনায় রাজপাড়া থানার ওসি সিদ্দিকুর রহমান বলেন, এমন ঘটনা আমার জানা নেই। যদি কেউ ঘুষ নিয়ে থাকে আমার কথা বলে তার বিরুদ্ধে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

Previous articleমাদারীপুরে ল্যাংগুয়েজ ও ইয়োগা ক্লাব উদ্বোধন
Next articleরাজশাহীতে বিএনপি’র বিভাগীয় সমাবেশ ঘিরে তৃণমূল নেতাকর্মীরা উজ্জীবিত
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।