বাংলাদেশ প্রতিবেদক: বরিশালের বাবুগঞ্জ উপজেলায় মোটরসাইকেল থেকে ছিটকে পড়ে শাহজাহান বেপারী (৫৯) নামে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। তিনি জেলার মুলাদী উপজেলার চাঞ্চল্যকর মনির হোসেন হত্যা মামলার সন্দেহভাজন আসামি ছিলেন। জামিন পেয়ে ছেলের সাথে বাড়ি ফেরার পথে গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে তাঁর মৃত্যু হয়। তিনি মুলাদীর কাজিরচর ইউনিয়নের চরকমিশনার এলাকার মৃত কদম আলী বেপারীর ছেলে।

স্বজনরা জানান, মুলাদী থানার মনির হত্যা মামলার সন্দেহভাজন আসামি হিসেবে গত ৬ নভেম্বর অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) সদস্যরা শাহজাহান বেপারীকে গ্রেফতার করে। এরপর হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে কারাগারে অসুস্থ হয়ে পড়েন। শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তার চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়। এরমধ্যে পরিবারের সদস্যরা অসুস্থতার কথা উল্লেখ করে আদালতে জামিন চাইলে বিচারক তা মঞ্জুর করেন। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার আগে জামিনে ছাড়া পেয়ে ছেলের মোটরসাইকেলে করে বাড়ি ফিরছিলেন তিনি। স্থানীয়রা জানান, শাহজাহান বেপারী তাঁর ছেলে মনির বেপারীর মোটরসাইকেলের পেছনে বসা ছিলেন। সন্ধ্যা ৭টার দিকে মোটরসাইকেলটি বাবুগঞ্জ উপজেলার রহমতপুর ইউনিয়নের দেলোয়ার হোসেন ফরাজির বাড়ির সামনে পৌছলে শাহজাহান বেপারী মোটরসাইকেল থেকে পড়ে গিয়ে গুরুতর আহত হন। কিছুদূর যাওয়ার পর মনির বেপারী বিষয়টি টের পান এবং তার বাবার কাছে ছুটে আসেন। তাৎক্ষণিকভাবে শাহজাহান বেপারীকে প্রথমে বাবুগঞ্জ কলেজ গেট সংলগ্ন গ্রিনলাইফ ডায়াগনস্টিক সেন্টারে এবং পরে সেখান থেকে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে তিনি মারা যান।

বাবুগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাহবুবুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, মোটরসাইকেল থেকে পড়ে গিয়ে শাহজাহান বেপারী গুরুতর আহত হয়েছিলেন। দুর্ঘটনাস্থল সংলগ্ন একটি বাড়ির সিসি টিভির ভিডিও ফুটেজে দেখা গেছে, ছেলে মনির বেপারীর মোটরসাইকেল থেকে হঠাৎ সড়কে পরে যান শাহজাহান বেপারী। শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়েছে। গতকাল শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টায় কাজিরচর ইউনিয়নের চরকমিশনার গ্রামে জানাযা শেষে তাকে পরিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।

উল্লেখ্য গত ২৩ মে রাতে মুলাদী উপজেলার কাজিরচর ইউনিয়নের চরকমিশনার এলাকার মনির হোসেন নামে এক যুবককে খুন করেন দুর্বৃত্তরা। পরদিন ২৪ মে সকালে চরকমিশনার এলাকার একটি মাছের ঘেরের পাশ থেকে তার হাত-পা বাঁধা অবস্থায় গলাকাটা মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। ওই দিনই নিহত মনির হোসেনের ছোট ভাই পাভেল হোসেন বাদী হয়ে মুলাদী থানায় একটি হত্যা মামলা করেন। তিন মাস আগে মামলাটি তদন্তের জন্য সিআইডিতে পাঠানো হয়। এ হত্যাকা-ে জড়িত থাকার সন্দেহে গত ৬ নভেম্বর শাহজাহান বেপারী এবং একই এলাকার রাজিব হাওলাদারকে গ্রেফতার করে সিআই‌ডি।

Previous articleমুলাদীতে ভিজিডির তালিকায় নাম উঠাতে স্বজনপ্রীতি ও টাকা নেওয়ার অভিযোগ
Next articleজনগণের উত্তাল তরঙ্গে আ’লীগ ভেসে যাবে: মির্জা ফখরুল
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।