বাংলাদেশ প্রতিবেদক: ফরিদপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় মা ও শিশুসন্তানসহ তিনজন নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে আরো তিনজন।

আজ বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে ঢাকা-ভাঙ্গা এক্সপ্রেসওয়ের ভাঙ্গা উপজেলার সলিলদিয়া নামক স্থানে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

এতে ঘটনাস্থলে নিহত হন ভাঙ্গা উপজেলার আতাদী গ্রামের জুয়েল শেখের স্ত্রী লাবনী বেগম (৩৮)। পরে ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে মারা যায় তার দুই বছরের কন্যাশিশু জয়নব আক্তার এবং একই এলাকার টিটুল শেখের মেয়ে সুরাইয়া আক্তার (১৭)।

আহত তিনজনের পরিচয় পাওয়া যায়নি। তাদের ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাদের ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়েছে।

শিবচর হাইওয়ে পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ঢাকা থেকে ভাঙ্গার দিকে ১৬ টন চিনি নিয়ে একটি ট্রাক যাচ্ছিল। এসময় প্রচুর কুয়াশা ছিল। রাস্তায় প্রায় কিছু দেখা যাচ্ছিল না। চিনিবাহী ট্রাকের পেছনে ভাঙ্গাগামী একটি ব্যক্তিগত গাড়িও ছিল। ওই গাড়িতে চালকসহ ছয়জন যাত্রী ছিল। ঘটনাস্থলে এলে পেছন থেকে ওই ব্যক্তিগত গাড়িটি ট্রাকটিকে ধাক্কা দিলে এই দুর্ঘটনা ঘটে। হতাহত ছয়জনই ওই ব্যক্তিগত গাড়ির যাত্রী ছিলেন।

পুলিশ জানায়, ঘন কুয়াশার কারণে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এতে ব্যাক্তিগত গাড়িটি দুমড়েমুচড়ে যায়।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে শিবচর হাইওয়ে পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) আব্দুল্লাহেল বাকী বলেন, এ ঘটনায় ট্রাকটিকে আটক করে হাইওয়ে থানায় এনে রাখা হয়েছে। তবে চালক ও সহকারী পালিয়ে গিয়েছে।

তিনি বলেন, নিহত লাবনী বেগমের লাশ হাইওয়ে থানায় ও বাকি দু’জনের লাশ ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে রয়েছে। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

Previous articleশিরোনামহীন – ২৩৬
Next articleমেট্রোরেলের ভাড়া বেশি নয় : কাদের
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।