বৃহস্পতিবার, জুন ১৩, ২০২৪
Homeসারাবাংলাউলিপুরে গলায় খেঁজুর আটকে শিশুর মৃত্যু

উলিপুরে গলায় খেঁজুর আটকে শিশুর মৃত্যু

আবুল কালাম আজাদ: কুড়িগ্রামের উলিপুরে গলায় খেঁজুর আটকে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে, রোববার (২ এপ্রিল) সকালে নন্দু নেফরা এলাকায়। এ ঘটনায় ওই এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

এলাকাবাসী ও নিহত শিশুর পরিবার সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার গুনাইগাছ ইউনিয়নের নন্দু নেফরা এলাকার সোলেমান মিয়ার ছেলে মনজিল মিয়া (৭) শুক্রবার (৩১ মার্চ) বিকালে খেঁজুর খাওয়ার সময় গলায় তা আটকে যায়। পরিবারের লোকজন তাকে নিয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতালে রেফার্ড করেন। পরবর্তীতে মনজিল কিছুটা সুস্থ্য হলে ওই দিনেই তাকে বাড়িতে নিয়ে আসা হয়। রোববার সকালে হঠাৎ করে শিশুটি গলায় ব্যথা অনুভব করলে পরিবারের লোকজন তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক শিশুটিকে মৃত ঘোষনা করেন।

নিহত শিশুর দাদা ফয়জার আলী ও চাচা মাসুদ রানা বলেন, ওই দিন কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ মনজিলকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করেন। কিন্তু আমরা তাকে রংপুর না নিয়ে কুড়িগ্রাম সদরের একটি ডায়াগনিস্টিক সেন্টারে তার গলার এক্সরে করানো হয়। রিপোর্টে গলার সমস্যা ধরা না পরায় আমরা তাকে বাড়িতে নিয়ে আসি। রোববার সকালে হঠাৎ করে মনজিলের গলায় তীব্র ব্যথা অনুভব হলে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন।

নিহত মনজিল স্থানীয় পপুলার মডেল কিন্ডার গার্টেন এর প্রথম শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিল বলে জানা গেছে। রোববার দুপুরে নিহত মনজিলের বাড়িতে গিয়ে দেখা যায়, এলাকার লোকজন শিশুটিকে দেখার জন্য ভিড় করছেন। এ সময় স্বজনদের কান্নায় সেখানে শোকের ছায়া নেমে আসে।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক নাদিয়া জেরিন বলেন, শিশুটিকে হাতপাতালে নেয়ার পূর্বেই তার মৃত্যু হয়।

গুনাইগাছ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোখলেছুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

আজকের বাংলাদেশhttps://www.ajkerbangladesh.com.bd/
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।
RELATED ARTICLES
- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments