বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ২১, ২০২৩
Homeঅপরাধতাহিরপুরে ঘুমন্ত স্বামী-স্ত্রী কে কুপিয়ে জখম

তাহিরপুরে ঘুমন্ত স্বামী-স্ত্রী কে কুপিয়ে জখম

আহম্মদ কবিরঃ সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলায় ঘুমন্ত অবস্থায় স্বামী-স্ত্রী কে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে মারাত্মক জখম।
শনিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) রাত আনুমানিক সাড়ে ৩টায় উপজেলার শ্রীপুর উত্তর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের কামালপুর গ্রামে ঘটনাটি ঘটে।এ ঘটনায় আহতরা হলেন উপজেলার কামালপুর গ্রামের মৃত সলু মিয়ার ছেলে নাছির মিয়া(৩০)ও তার স্ত্রী আলপিনা বেগম(২৫)।
এ বিষয়ে স্থানীয়রা জানান দীর্ঘদিন ধরে ভিকটিম নাছির মিয়ার পরিবারের সাথে আতাবুর মিয়া ক্ষোভ দেখা দেয়,এরই সুত্র ধরে আজ রাত আনুমানিক সাড়ে ৩টার সময় সবাই যখন ঘুমিয়ে যায়। এই সুযোগে ভিকটিম নাছির মিয়ার ঘড়ের দরজার রশি কেটে ঘড়ে ঢুকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে নাছির মিয়া ও তার স্ত্রী আলপিনা বেগম কে কুপিয়ে মারাত্মকভাবে জখম করে। এই সময়ে ভিকটিম নাছির ও তার স্ত্রীর চিৎকার শুনে আত্মীয়-স্বজনসহ প্রতিবেশীরা তাদের গুরুতর অবস্থায় উদ্ধার করে তাহিরপুর উপজেলা স্বাস্থ-কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়।তারা জানান এর পূর্বেও আতাবুর মিয়া ভিকটিম নাছির মিয়ার স্ত্রী আলপিনা বেগম কে একা পেয়ে মারধর করে বিষয়টি স্থানীয়রা সমাধান করলেও আতাবুর মিয়ার ক্ষোভ থেকেই যায়।জানাযায় আতাবুর মিয়া ভিকটিম নাছির মিয়ার চাচাতো ভাই সে মানষিকভাবে অসুস্থ্য।
স্থানীয় ইউপি সদস্য সাজিনুর মিয়া জানান আমাকে ঘুমের মাঝে আলাল নামের একজন ডেকে তুলে বললো কামালপুর গ্রামের নাছির ও তার স্ত্রী কে কুপিয়ে ফেলছে ওই গ্রামের আতাবুর মিয়া।তাৎক্ষণিক কামালপুর গ্রামে গিয়ে শুনি,আতাবুর মিয়া ভিকটিম নাছির মিয়ার ঘরে দরজার রশি কেটে ঘরে ঢুকে নাছির ও তার স্ত্রী কে ঘুমন্ত অবস্থায় কুপিয়ে মারাত্মক ভাবে জখম করে।উনি বলেন এই ন্যাক্কারজনক ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাই ও আতাবুর কে দ্রুত আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাই।
এ বিষয়ে তাহিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য-কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক মির্জা রিয়াদ হাসান জানান ধারালো অস্ত্রের আঘাতে নাছির ও তার বউ মারাত্মক ভাবে জখম হয়েছে। তাদের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য সিলেট এম,এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ। করে।
এবিষয়ে তাহিরপুর থানা অফিসার ইনচার্জ সৈয়দ ইফতেখার হোসেন বলেন,স্বামী-স্ত্রী কে কুপিয়ে জখম করার বিষয়টি শুনেছি। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হচ্ছে।জখকারী লোকটি না-কি মানষিকভাবে সমস্যা রয়েছে। এ হিসাবে তার চিকিৎসকরা দরকার।
আজকের বাংলাদেশhttps://www.ajkerkagoj.com.bd/
Ajker Bangladesh Online Newspaper, We serve complete truth to our readers, Our hands are not obstructed, we can say & open our eyes. County news, Breaking news, National news, bangladeshi news, International news & reporting. 24 hours update.
RELATED ARTICLES
- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments