বাংলাদেশ প্রতিবেদক: ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) বুধবার মূল্য সূচকের ব্যাপক পতনে লেনদেন শেষ হয়েছে। এদিন ডিএসই প্রধান মূল্য সূচক ডিএসইএক্স ৯৪ পয়েন্ট কমেছে। ডিএসই প্রধান সূচক ৩ মাসের মধ্যে সবচেয়ে নিচে নেমে গেছে। এদিন ডিএসইতে টাকার অঙ্কে লেনদেনের পরিমাণও কমেছে। অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জেও (সিএসই) সূচকের বড় পতনে লেনদেন শেষ হয়েছে।
বাজার সংশ্লিষ্টরা বলেন, করোনা ছাড়া বাজার পতনের অন্য কোনো কারণ নাই। সরকার ইতিমধ্যে স্বাস্থ্যবিধি সম্পর্কিত নির্দেশনা জারি করেছে, বিনিয়োগকারীদের সে অনুযায়ী মেনে চলা উচিত। তাদের মতে, করোনা প্রকোপের কারণেই এমনটি হয়েছে। করোনা সংক্রমণ বাড়তে থাকায় ১৮ দফা নির্দেশনা জারির পর পুঁজিবাজারে দরপতন হয়েছে সব খাতে।

লেনদেন আবার স্থগিত হবে-এমন কথা বিনিয়োগকারীদের মধ্যে আবার ছড়িয়েছে। এ কারণে শেয়ার বিক্রি করে দিয়ে হাতে নগদ টাকা রেখে দিতে চাইছেন বহুজন।

জানা গেছে, আজ ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৯৪.৯৬ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ৫ হাজার ২৭৮.১৬ পয়েন্টে। ডিএসইর এই সূচকটি ৩ মাস ৭ দিন বা ৬৫ কার্যদিবসের মধ্যে সবচেয়ে নিচে নেমে গেছে। এর আগে ২০২০ সালের ২৪ ডিসেম্বর সূচকটি আজকের চেয়ে নিচে অবস্থান করছিল। অর্থাৎ ওই দিন সূচকটি ৫ হাজার ২১৮ পয়েন্টে অবস্থান করছিল।

বুধবার ডিএসইতে টাকার পরিমাণে ৫৫৬ কোটি ২৮ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। আজ ডিএসইতে আগের দিন থেকে ৭৪ কোটি ৪২ লাখ টাকা কম লেনদেন হয়েছে। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৬৩৪ কোটি ৬৮ লাখ টাকার।

অপর দুই সূচকের মধ্যে ডিএসই৩০ সূচক ৪২ পয়েন্ট কমেছে এবং ডিএসইএস বা শরিয়াহ সূচক ১৬ পয়েন্ট কমেছে।

বুধবার ডিএসইতে মোট ৩৪৮টি কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১১টির, দর কমেছে ২৫৭টির এবং দর অপরিবর্তিত রয়েছে ৮০টি কোম্পানির।

অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই কমেছে ২৮৪ পয়েন্ট। সূচকটি ১৫ হাজার ২৮১ পয়েন্টে অবস্থান করছে। সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৩৬ কোটি ৯৩ লাখ টাকার শেয়ার। সিএসইতে মোট ২২৯টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ২২৯টির, দর কমেছে ১৬টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১৬৭টির।
উল্লেখ্য, সোমবার নির্দেশনা জারির পর মঙ্গলবার শবে বরাতের ছুটিতে বন্ধ ছিল লেনদেন। বুধবার সকাল ১০টায় লেনদেন শুরুর ৫ মিনিটে সূচক পড়ে যায় ৪০ পয়েন্টের বেশি। এক পর্যায়ে তা ১০০ পয়েন্টের বেশি কমে যায়। তবে দিন শেষে সূচক হারায় ৯৪ পয়েন্ট।

কদিন আগেও সংক্রমণ ধরা পড়ার পর যাওয়ায় গুজব উঠে পুঁজিবাজারের লেনদেন বন্ধ হচ্ছে। কিন্ত এমন খবরের কোনো ভিত্তি নেই উল্লেখ করে পুঁজিবাজারে নিয়ন্ত্রক সংস্থা জানায়, ব্যাংকের কার্যক্রম চলবে তত দিন পুঁজিবাজারে লেনদেন হবে।

Previous article‘বিতর্ক এড়াতে হেফাজতের শীর্ষ নেতাদের বিরুদ্ধে মামলা হয়নি’
Next articleশাবিপ্রবিতে অনির্দিষ্টকালের লকডাউন ঘোষণা
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।