জাবিতে আন্দোলনকারীদের ওপর ছাত্রলীগের হামলা, সাংবাদিকসহ আহত ৩০

বাংলাদেশ প্রতিবেদক: জাহাঙ্গীরনগর বিশ্বদ্যিালয়ে ভিসির পদত্যাগ দাবিতে আন্দোলনকারী শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের সঙ্গে ছাত্রলীগের সংঘর্ষ চলছে। এ সময় ছাত্রলীগের হামলায় আহত হয়েছেন বেশ কয়েকজন শিক্ষক, সাংবাদিকসহ অন্তত ৩০ আন্দোলনকারী।

আজ বেলা সাড়ে ১১টা থেকে এ সংঘর্ষ শুরু হয়। এদিকে আন্দোলনকারীদের অভিযোগ, তাদের বেশ কয়েকজনকে পাওয়া যাচ্ছে না। ছাত্রলীগ তাদের তুলে নিয়ে গেছে।

আহতরা হলেন, নৃবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক অধ্যাপক সাঈদ ফেরদৌস, একই বিভাগের অধ্যাপক মীর্জা তাসলিমা সুলতানা, দর্শন বিভাগের শিক্ষক অধ্যাপক রায়হান রাইন। ছাত্রদের মধ্যে আহতরা হলেন, আলিফ (ইংলিশ, ৪৭ ব্যাচ), মারুফ (দর্শন, ৪৪ ব্যাচ), রুদ্রনীল (দর্শন, ৪৫ ব্যাচ) সহ আরও অনেকে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের চলমান মেগাপ্রকল্পে দুর্নীতিসহ নানা অভিযোগ এনে গত একমাসের বেশি সময় ধরে আন্দোলনে নামে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের একটি অংশ।ভিসির বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠে, তিনি ছাত্রলীগকে দুই কোটি টাকার দিয়েছেন। এর বিরুদ্ধে ফুঁসে ওঠে শিক্ষার্থীরা। তাদের আন্দোলনে যোগ দেন শিক্ষদের একটি অংশ। ভিসির পদত্যাগ দাবি করেন তারা।

এরই ধারাবাহিকতায় গতকাল সন্ধ্যা থেকে ভিসির বাসভবন ঘেরাও করে আন্দোলনকারীরা। এ সময় বাসার ভেতরে ভিসি অধ্যাপক ফারজানা ইসলাম অবরুদ্ধ হয়ে পড়ে। আজ সকালে এ অবরোধ কর্মসূচি চলাকালে বেলা সাড়ে ১১টার দিকে হঠাৎ করেই মিছিল নিয়ে ভিসির পক্ষে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা হাজির হন। এ সময় উভয়পক্ষ মুখোমুখি অবস্থান নেয়। পরে ছাত্র হাতাহাতির একপর্যায়ে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা আন্দোলনকারীদের ওপর হামলা চালায়।