বাংলাদেশ প্রতিবেদক: আসন্ন ২০২০-২১ সেশনে মেডিকেল কলেজের এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষা ও ডেন্টাল কলেজের ভর্তি পরীক্ষায় করোনা পরিস্থিতিতে প্রতিটি কেন্দ্রে একটি করে আইসোলেশন কক্ষের ব্যবস্থা রাখা হচ্ছে। সেই সঙ্গে এবারই প্রথম পরীক্ষা কেন্দ্রে অসুস্থ পরীক্ষার্থীদের জরুরি চিকিৎসা প্রদানে অক্সিজেন সিলিন্ডারসহ অন্যান্য প্রাথমিক চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হবে।

সোমবার (২৯ মার্চ) স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদফতরের পরিচালক (চিকিৎসা শিক্ষা) অধ্যাপক ডা. এ কে এম আহসান হাবিব সংবাদমাধ্যমকে এসব কথা জানান।

তিনি বলেন, করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধ করতে পরীক্ষার্থীকে মাস্ক পরিধান করে পরীক্ষা কেন্দ্রে আসতে হবে এবং এক ঘণ্টা পরীক্ষার পুরো সময়টাই মাস্ক পরিধান করে থাকতে হবে। ইতিমধ্যেই মাস্ক পরে আসার বিষয়টি পরীক্ষার প্রবেশপত্রে উল্লেখ হয়েছে।

এছাড়া কেউ যদি ভুল করে মাস্ক পরিধান না করে আসে তাহলে তাদের জন্য পরীক্ষা কেন্দ্র থেকে মাস্ক সরবরাহেরও ব্যবস্থা রাখা হচ্ছে। একইসঙ্গে পরীক্ষার্থীদের সঙ্গে আসা অভিভাবকরা যেন শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে কেন্দ্রের বাইরে অবস্থান করতে পারে সেজন্য তাদের বসার ব্যবস্থাও সংশ্লিষ্ট কেন্দ্রের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা করবেন বলে জানান তিনি।

তিনি বলেন, পরীক্ষার্থীদের মধ্যে কেউ অসুস্থ হলে তাদের জন্য প্রতিটি কেন্দ্রে একটি করে আইসোলেশন কক্ষ থাকবে। করোনাকালে কোনো পরীক্ষার্থীর আকস্মিক শ্বাসকষ্ট হলে তার চিকিৎসার জন্য অক্সিজেন সিলিন্ডারেরও ব্যবস্থা রাখা হচ্ছে।

ডা. এ কে এম আহসান হাবিব বলেন, ‘পূর্বনির্ধারিত ২ এপ্রিলেই পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। সার্বিক করোনা পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ে সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে পরীক্ষা গ্রহণের সার্বিক প্রস্তুতি এগিয়ে চলেছে। প্রত্যেক পরীক্ষার্থীকে কেন্দ্রে অবশ্যই মাস্ক পরে আসতে হবে এবং পরীক্ষার এক ঘণ্টা মাস্ক পরেই পরীক্ষা দিতে হবে। তবে কেউ মাস্ক পরিধান না করলে তাদের জন্য মাস্ক সরবাহের ব্যবস্থা থাকবে, তবে তা গণহারে নয়’

আহসান হাবিব আরও বলেন, ‘এ ভর্তি পরীক্ষাটি স্বচ্ছতা ও স্বাস্থ্যবিধি ঠিক রাখতে সরকারের পুলিশ বাহিনী, গোয়েন্দা শাখা, শিক্ষা বিভাগ, বিদ্যুৎ বিভাগসহ সংশ্লিষ্ট সব শাখা মিলে টিমওয়ার্ক ও কো-অর্ডিনেশনের মাধ্যমে কাজ করবে এবং পরীক্ষা কেন্দ্রে ও কেন্দ্রের আশপাশে এলাকার স্বাস্থ্যবিধি বজায় রাখবে।’

পরীক্ষার আগে সামাজিকমাধ্যমগুলোতে যেন কোনো গুজব ছড়াতে না পারে সে ব্যাপারেও সরকারের সংশ্লিষ্ট বিশেষ শাখাগুলো কাজ করবে। আশা করা যায়, যথাযথভাবে স্বাস্থ্যবিধি বজায় রেখেই এবারের মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষা নির্বিঘ্নেই অনুষ্ঠিত হবে বলে জানান আহসান হাবিব।

এ বছর পরীক্ষার্থী সংখ্যা ১ লাখ ২২ হাজার ৮৭৪ জন। পাশাপাশি এ বছর করোনার কারণে সকলের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করতে কেন্দ্র সংখ্যা ১৯টি এবং ভেন্যু সংখ্যা ৫৫টি করা হয়েছে। একই সঙ্গে কেন্দ্রের ভেতরে পরীক্ষা চলাকালীন পরীক্ষার্থীদের ও কেন্দ্রের বাইরে অপেক্ষমান অভিভাবকদের স্বাস্থ্যবিধি বজায় রাখতে বিশেষ নজরদারির ব্যবস্থা থাকবে।

Previous articleবিএনপি নেত্রী নিপুণ রায় ৩ দিনের রিমান্ডে
Next article৪২তম বিসিএসের ফল প্রকাশ
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।