বাংলাদেশ ডেস্ক: নিরাপদ সড়ক দাবিতে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) ছাত্র ফেডারেশনের ‘লাশের মিছিল’ কর্মসূচি পালনকালে তাদেরকে ‘পিটিয়ে শোয়ায়ে দিতে’ বলেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর মুখলেছুর রহমান।

বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের জোহা চত্বরে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার একটি ভিডিও আমাদের গণমাধ্যমকর্মীদের হাতে রয়েছে। মিছিলটির আয়োজন করে রাবি ও মহানগর ছাত্র ফেডারেশন। কর্মসূচি পালনকালে তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে কটূক্তির অভিযোগ আনেন।

ভিডিওতে কর্মসূচির পাশে দাঁড়িয়ে থাকা কয়েকজন যুুবককে উদ্দেশ করে সহকারী প্রক্টর মুখলেছুর রহমানকে বলতে শোনা যায়, ‘কী করো তোমরা? কীসের জন্য আসছো? শোয়ায়ে দিবা। এটা কি মগের মুল্লুক? পিটায়ে শোয়ায়ে দিবা এদের।’

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, উপস্থিত যুবকরা ছাত্রলীগের নেতাকর্মী ছিলেন। তারা আরও জানান, আন্দোলন চলাকালে ছাত্র ফেডারেশনের এক নেতার হাতে প্ল্যাকার্ড দেখে ক্ষিপ্ত হন সহকারী প্রক্টর মুখলেছুর রহমান। তিনি প্ল্যাকার্ডে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে কটূক্তি করা হয়েছে দাবি করে তাদের ওপর ক্ষুব্ধ হয়ে একথা বলেন। পরে রাবি ছাত্র ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক মহব্বত হোসেন মিলনকে প্রক্টর কার্যালয়ে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক মহাব্বত হোসেন মিলন বলেন, সম্প্রতি ঢাকায় পরপর দুটি সড়ক দুর্ঘটনা ঘটল। দুই শিক্ষার্থী মারা গেছে। এগুলো কাঠামোগত হত্যাকাণ্ড। আমরা মনে করি, সড়কে এই ধরনের হত্যাকাণ্ডের দায় সরকারকেই নিতে হবে। সেজন্য ‘লাশের মিছিল’ কর্মসূচি পালন করতে যাই। পরে প্রক্টরের সঙ্গে একটু সমস্যার কারণে কর্মসূচি পণ্ড হয়ে যায়।

এ বিষয়ে সহকারী প্রক্টর মুখলেছুর রহমান এই প্রতিবেদককে বলেন, ‘কি বলেছি, কেন বলেছি সেটা তো মনে হয় শুনেছো। যাকে বলেছি তার সঙ্গে ঠিক হয়ে গেছে। এর বেশি কিছু মন্তব্য করতে চাচ্ছি না।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর লিয়াকত আলীর কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি মিটিং আছেন বলে জানান।

সূত্র: সমকাল

Previous articleশিক্ষকের দোকান থেকে অবৈধভাবে মজুদকৃত ৫৭বস্তা সার জব্দ, ভ্রাম্যমাণ আদালতে অর্থদন্ড
Next articleকৃষিতে জৈব কীটনাশকের গুরুত্ব
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।