বাংলাদেশ প্রতিবেদক: অনেকদিন ধরেই আত্মগোপনে আছেন অভিনেত্রী সাদিকা পারভীন পপি। এরমধ্যে তার বিয়ে, সন্তান হওয়ার খবর ছড়িয়েছে। কিন্তু সে সব নিয়ে কথা বলতে দেখা যায়নি অভিনেত্রীকে। তবে বুধবার দুপুরে পপির এক ভিডিও বার্তা ছড়িয়ে পড়ে ফেসবুক ও ইউটিবউবে। ওই ভিডিওতে পপি বিভিন্ন অভিযোগ জানিয়েছেন। বলেছেন, কেন তিনি সিনেমা থেকে দূরে!

ভিডিও বার্তায় পপি বলেন, ‘আমার মানসম্মানের ভয় ছিল, জানের ভয় ছিল। সব কিছু মিলে আমি নিজেকে গুটিয়ে নিয়েছি সিনেমা থেকে।’ অভিনেত্রীর অভিযোগ, ‘বর্তমান সমিতির একটিমাত্র ব্যক্তির কারণে, তার পলিটিকস, তার নোংরামি এবং অনেক রকমের অপকর্মে অসহযোগিতা করার কারণে আমাকে বারবার অপমানিত হতে হয়েছে। শুধু আমি না, রিয়াজ, ফেরদৌস, পূর্ণিমা, আমাদের সকলকে ব্যবহার করা হয়েছে। আমাদের কাঁধে বন্দুক রেখে সে এই চেয়ারটিতে বসেছে এবং বিভিন্ন রকম অপকর্ম করার চেষ্টা করেছে, যেখানে আমি বা আমরা সায় দিইনি। যার কারণে আজকে আমি ভিকটিম।’

তিনবার জাতীয় পুরস্কার পাওয়া অভিনেত্রী পপিকে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সদস্য পদও বাতিল করা হয়েছে। এ অভিযোগ জানিয়ে পপি বলেন, ‘আমার মতো শিল্পী যে তিন তিনবার ন্যাশনাল অ্যাওয়ার্ড পেয়েছে, এই আমার সদস্য পদ বাতিলের চিঠি দেয়া হয়েছে। এত দিন ধরে কাজ করার পর এটা একজন শিল্পীর জন্য কতটুকু অপমানের আমি বুঝতে পারি।’

পপি ইঙ্গিত দিয়েছেন, চলচ্চিত্রের পরিবেশ ভালো হলে আবারো পর্দায় দেখা যাবে তাকে। অভিনেত্রী বলেন, ‘আমার সদস্য পদ বাতিলের চিঠিটি এখনো আছে। আমি নিজেকে সরিয়ে নিয়েছি এই নোংরা পরিবেশ থেকে। যদি পরিবেশ কখনো ভালো হয় তবে ফিরব। এই নোংরা মানুষগুলো যদি সরে যায় তখনই ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করব।’

Previous articleরংপুরে হত্যা মামলায় যুবকের মৃত্যুদণ্ড, আরেক জনের যাবজ্জীবন
Next articleবিচারকের যে রায়ে মুগ্ধ হয়ে মুসলিম হন ইহুদি
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।