মঙ্গলবার, এপ্রিল ২৩, ২০২৪
Homeস্বাস্থ্য সেবাকোমর ব্যথা নিয়ন্ত্রন করবে এই ৫ টি উপায়

কোমর ব্যথা নিয়ন্ত্রন করবে এই ৫ টি উপায়

প্রফেসর আলতাফ ঃ ব্যথা হলে কেউ মুভমেন্ট করতে চায় না, কিন্তু গবেষকগন বলছেন ব্যথা হলে বেশি দিন রেস্টে থাকা যাবে না। তাই কোমর ব্যথা হলে বেড রেস্ট নয় মুভমেন্ট করতে থাকেন। মোসন ইজ লোশন।
ফিজিওথোপি চিকিৎসা – কোমর ব্যথা ৩ মাসের বেশী সময় হলে ব্যথার ঔষধ কাজ করে না। দীর্ঘদিনের ব্যথার জন্য একজন ফিজিওথেরাপি চিকিৎসকের তত্বাবোধানে সঠিক ফিজিওথেরাপি চিকিৎসা নিন। মনে রাখবেন সঠিক ফিজিওথেরাপি চিকিৎসা ব্যথা কমাতে যুগান্তকারী ভূমিকা পালন করবে। একজন ফিজিওথেরাপি চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী প্রতিদিন স্ট্রেচিং এবং স্ট্রেদেনিং এক্সারসাইজ করতে হবে। এক্সারসাইজ ব্যথা কমায়। প্রতিদিন একটানা ৩০ মিনিট হাঁটুন
সঠিক পোশ্চার মেনে চলুন। অসঠিক পোশ্চার ব্যথা বাড়ায়। কোমর সোজা রেখে সঠিক ভাবে বসা থেকে উঠুন , সঠিক পোশ্চারে উঠুন। একই ভঙ্গিতে দীর্ঘসময় না থেকে ভঙ্গি পরিবর্তন করুন। কিপ ইউর ব্যক হলো।
মেন্টেন এ হেলদি ওয়েট – সঠিক ওজন নিয়ন্ত্রন করুন।
ধূমপান ত্যাগ করুন। প্রচুর পানি পান করুন।
সিনিয়র সিটিজেন স্বাস্থ্য টিপস-
র্হাট ভালো রাখতে ৩ টি টিপস মেনে চলুন
এক্সারসাইজ : প্রতিদিন এক্সারসাইজ করুন। নিয়মিত এক্সারসাইজ হার্ট এর সুস্থতার জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। যারা কার্ডিওভাসকুলার ডিজিজ এ ভুগছেন তারা যদি প্রতিদিন এক্সারসাইজ করেন তাহলে স্ট্রোক হওয়ার ঝুঁকি তিন ভাগের এক ভাগ কমে যায়। এছাড়া নিয়মিত এক্সারসাইজ শুধু শারিরীক নয় মানসিক সুস্থতা এনে দেয়।এক গবেষনায় বলা হয়েছে যাদের বয়স ৬০ এর উপরে তারা যদি সপ্তাহে ৫দিন ৩০মিনিট রেগুলার এক্সারসাইজ করে তাহলে বছরে যে টাকা তিনি চিকিৎসার জন্য ব্যয় করে তা অনেকাংশে কমে আসে। এক্সারসাইজ এর অনেক উাপকারিতা আছে।
সঠিক খাদ্যভাস: সঠিক খাদ্যভাস গড়ে তুলুন। যেসব খাবারে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার বা আঁশ আছে সেসব খাবার খাবেন। এসব খাবারের কারণে শরীরে স্বাস্থ্যকর ব্যাকটেরিয়া তৈরি হয়। কোলেস্টেরলের মাত্রা নিয়ন্ত্রণের মধ্যে রাখতে সাহায্য করে এই ব্যাকটেরিয়া।বেশি আঁশ আছে এরকম সবজির মধ্যে রয়েছে শিম ও মটরশুঁটি জাতীয় সবজি, কলাই ও ডাল জাতীয় শস্য এবং ফলমূল।পুষ্টি বিজ্ঞানীরা বলছেন, আলু এবং শেকড় জাতীয় সবজি খোসাসহ রান্না করলে সেগুলো থেকেও প্রচুর আঁশ পাওয়া যায়।এছাড়াও তারা হোলগ্রেইন আটার রুটি এবং বাদামী চাল খাবারও পরামর্শ দিয়েছেন।
নিয়মিত দাঁত পরিক্ষা করুন। মুখের স্বাস্থ্য আপনার সম্পূর্ণ স্বাস্থ্য কেমন তার নির্দেশক। বিভিন্ন গবেষণায় জানা গেছে, মুখের স্বাস্থ্য খারাপ হলে তা হার্টের খারাপ স্বাস্থ্যের সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত। আপনার দাঁত এবং মাড়ি সুস্থ রাখতে নিয়মিত দাঁত ব্রাশ করুন এবং দাঁত পরিষ্কার রাখুন। আপনার দাঁতে সমস্যা দেখা দিলে তা ক্যাবিটি ছাড়া অন্য রোগেরও নির্দেশক। লেখক (বিশিস্ট ফিজিও থেরাপিস্ট )

 

আজকের বাংলাদেশhttps://www.ajkerkagoj.com.bd/
Ajker Bangladesh Online Newspaper, We serve complete truth to our readers, Our hands are not obstructed, we can say & open our eyes. County news, Breaking news, National news, bangladeshi news, International news & reporting. 24 hours update.
RELATED ARTICLES
- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments